সারাদেশে করোনা মহাবিপদ সৃষ্টি করতে যাচ্ছে : ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ

shadhinalo

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ বলেছেন, করোনার বিপদ এখন শুধু ঢাকার মধ্যে সীমিত নেই। সারাদেশে এটা ছড়িয়ে পড়েছে। সারাদেশেই করোনা এখন আমাদের জন্য বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা বলেন।

তিনি মনে করেন, ঢাকার বাইরে করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটি অত্যন্ত আতঙ্কের এবং এর ফলে মহা বিপদ সৃষ্টি হতে পারে।

তিনি বলেন, নাগরিক হিসেবে আমাদের দায়িত্ব পালন করতে হবে এবং সরকার ও জনগণের মধ্যে সমন্বয় করে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে। নাহলে আমরা এক কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হবো।

ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ মনে করেন যে, আমাদের নাগরিক হিসেবে সচেতনতার পরিচয় দিতে হবে, দায়িত্ববোধের পরিচয় দিতে হবে। ঈদের সময় যে লাখ লাখ মানুষ ঢাকা থেকে সারা দেশের বিভিন্ন জেলায় চলে গেল এর ফলে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। এরা সারাদেশে করোনা ছড়িয়ে দিয়েছে।

তিনি বলেন, ঢাকার বাইরে চিকিৎসা ব্যবস্থা অত্যন্ত দুর্বল। গুরুতর অসুস্থ রোগীদের ঢাকার বাইরে করোনা চিকিৎসা দেয়া অত্যন্ত কঠিন হয়ে পড়বে। কারণ সেখানে অক্সিজেনের স্বল্পতা রয়েছে। আইসিইউ নেই। ভ্যান্টিলেশনের ব্যবস্থাও নেই। এমনকি উপজেলা পর্যায়েও আমাদের জটিল করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়াটা দুঃসাধ্য ব্যাপার হবে বলে তিনি মনে করেন।

তিনি বলছেন, ইতিমধ্যে সরকারি হাসপাতালগুলো পরিপূর্ণ হয়ে গেছে। যে বেসরকারি হাসপাতালগুলো সরকার নিয়েছিল, সেখানেও এখন জায়গা দেওয়া যাচ্ছে না। যদি রোগী এভাবে বাড়তে থাকে তাহলে হাসপাতালে জায়গা দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে, যেটি আমাদের জন্য আরেকটি বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ মনে করেন যে, বাংলাদেশের একটা আশার দিক হলো মৃত্যুর হার কম। অন্যান্য দেশগুলোতে এরকম পরিস্থিতিতে যেভাবে মৃত্যু হচ্ছিল, বাংলাদেশে সেটা হচ্ছে না। কিন্তু এটা নিয়ে আত্মতুষ্টির কোনো সুযোগ নেয় বলে তিনি সাবধান করে দেন।

তিনি মনে করেন, বর্তমানে বাংলাদেশে যে পরস্থিতি তা মোকাবেলার জন্য জনগণের দায়িত্ব অনেক বেশী। নাগরিক হিসেবে আমাদের প্রত্যেকেরই দায়িত্ব পালন করতে হবে।

ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ বলেন, এখন যদি আমরা দায়িত্বশীল আচরণ না করি, তাহলে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন যে, আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। আমরা যেন অযথা ঘোরাফেরা না করি। আমরা যেন মাস্ক ব্যবহার করি এবং অফিস আদালতে যাওয়ার ক্ষেত্রে আমরা যেন সতর্কতা অবলম্বন করি।

ডা. আব্দুল্লাহ মনে করেন যে, আমরা যদি নিজেদের সরক্ষা করতে পারি, তাহলে আরেকজন মানুষ সুরক্ষিত থাকবে এবং পরিবার সুরক্ষিত থাকবে।

তিনি মনে করেন, অর্থনীতি সচল রাখতে সব চালু করার ফলে এখন নাগরিক হিসেবে আমাদের দায়িতেও অনেক বেড়েছে। আমাদেরকে সরকারের সাথে সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। নাগরিক হিসেবে আমাদের উপর অর্পিত যে দায়িত্ব, সেটা যপদি পালন করতে পারি তাহলেই আমরা করোনা মোকাবেলার ক্ষেত্রে সফল হতে পারবো।

স্বাআলো/এসএ