যেভাবে কার্যকর হবে বর্ধিত বাসভাড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা : করোনাভাইরাস সঙ্কটে দুই মাস বন্ধ থাকার পর ৩১ মে থেকে সীমিত পরিসরে গণপরিবহন চালুর অনুমতি দিয়েছে সরকার। আগামীকাল সোমবার থেকে বাস ও মিনিবাস নামবে সড়কে। তবে এই সময়ে কম যাত্রী তুলতে হবে বাসে।এ কারণে মালিকদের যে ক্ষতি হবে তা পোষাতে আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার বাস ও মিনিবাসের ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত দিয়েছে সরকার।

রবিবার সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ থেকে বাস ভাড়া বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এই ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লায় চলাচলকারী ঢাকা মহানগর ও পার্শবর্তী এলাকা এবং চট্টগ্রাম মহানগরে চলাচলকারী যাত্রীবাহী বাস ও মিনিবাসের ভাড়া করোনা পরিস্থিতিতে ৬০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

এতে আরো বলা হয়েছে, আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লা রুটে চলাচলের ক্ষেত্রে সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়কের ২০১৯ সালের ৩ মে যাত্রীপ্রতি নির্ধারিত ভাড়া কিলোমিটারে ভাড়া ১ টাকা ৪২ পয়সা থেকে ৬০ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ঢাকা ট্রান্সপোর্ট কো-অর্ডিনেশন অথরিটির আওতাধীন জেলার নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, গাজীপুর, মানিকগঞ্জ, নরসিংদী ও ঢাকা জেলার অভ্যন্তরে চলাচলকারী বাস ও মিনিবাস ভাড়া যাত্রীপ্রতি কিলোমিটারে ১ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ৬০ শতাংশ বাড়ানো হল।

এতে আরো বলা হয়েছে, ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে চলাচলকারী বাস ও মিনিবাসের সর্বনিম্ন ভাড়া ৭ টাকা ও ৫ টাকা থেকে ৬০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এই দুই এলাকায় সর্বোচ্চ ভাড়া কিলোমিটারে ১ টাকা ৭০ পয়সা ও ১ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ৬০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) ৮০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব করলেও তা কমিয়ে ৬০ শতাংশ করার সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রণালয়।

রবিবার সকালে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন, করোনাকালীন গণপরিবহনের ভাড়া সমন্বয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) প্রস্তাবিত ভাড়া কমিয়ে মন্ত্রণালয় একটি যুক্তিসঙ্গত হার নির্ধারণ করেছে।

তিনি জানান, দেশের জনগণের জন্য ৮০ শতাংশ ভাড়া সমন্বয় বাড়তি চাপ তৈরি করবে। সরকারকে যেমন যাত্রীদের স্বার্থ দেখতে হবে, তেমনি পরিবহন খাতকেও সহযোগিতা করতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, এ মুহূর্তে জনগণের আর্থিক সক্ষমতা বিবেচনায় নিয়েই সরকার প্রস্তাবিত ভাড়ার হার কমিয়ে যৌক্তিক পর্যায়ে সমন্বয় করতে যাচ্ছে। মন্ত্রী জানান, করোনাকালীন বাস-মিনিবাসসমূহকে মোট আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে হবে। করোনা সংক্রমণ রোধে অর্ধেক আসন খালি থাকবে। মন্ত্রীর কথার পরই দুপুরে এই প্রজ্ঞাপন জারি হল।

স্বাআলো/এসএ