শ্রদ্ধা-ভালবাসায় কাবুলকে চিরবিদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর : বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও শ্রেণি-পেশার মানুষের শ্রদ্ধা ভালবাসায় চিরনিদ্রায় শায়িত হয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য যশোরের বিশিষ্টজন মোস্তাফিজুর রহমান কাবুল।

আজ সোমবার শহরের বারান্দিপাড়া কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এর আগে রবিবার রাতে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৬০ বছর। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। এছাড়া তিনি যশোর ইনস্টিটিউটের লাইব্রেরি সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ছিলেন নান্নু চৌধুরী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের সদস্য সচিব। মোস্তাফিজুর রহমান কাবুল যশোরের মণিরামপুর উপজেলার ঝাঁপা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি জনতা ব্যাংকে চাকরি করতেন।

মোস্তাফিজুর রহমান কাবুলের মামা অ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান সাবু জানান, রবিবার তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। রাত নয়টার কিছু সময় আগে তিনি মারা যান।

তিনি আরো জানান, গত মাসের মাঝামাঝি সময়ে কাবুল অসুস্থ হয়ে পড়েন। ২২ এপ্রিল যশোরের কুইন্স হাসাপাতালে তার এমআরআই করা হয়। তাতে তার মাথায় মাল্টিপল টিউমার ধরা পড়ে। এরপর তিনি ঢাকায় মেয়ের বাসায় চলে যান। সেখানে থেকে তিনি রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করান। এতে তার ফুসফুসের ক্যানসার ধরা পড়ে। চিকিৎসার অংশ হিসেবে মহাখালী ক্যানসার হাসপাতালে কাবুলের শরীরে পাঁচ দফা রেডিয়েশন দেয়া হয়েছিল। কিš‘ কেমোথেরাপি দেয়ার সুযোগ হয়নি।

এদিকে, সোমবার সকালে মোস্তাফিজুর রহমান কাবুলের মরদেহ যশোরের বাসভবনে আনা হয়। সেখান থেকে তার মরদেহ নান্নু চৌধুরী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে তার মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

শুরুতে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পক্ষ থেকে মোস্তাফিজুর রহমান কাবুলের মরদেহে দলীয় পতাকা সমর্পন করে সালাম জানানো হয়। তারপর নান্নু চৌধুরী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে তাকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় ও যশোর জেলা কমিটি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, জেলা শিল্পকলা একাডেমি, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কবাদী) কেন্দ্রীয় ও যশোর জেলা কমিটি, ওয়ার্কার্স পাটি নড়াইল জেলা শাখা, জয়তি সোসাইটি, শেকড় যশোর, সুরধুনী, আসাদ স্মৃতি সংঘ, বিবর্তন যশোর, ছাত্রমৈত্রী, যুবমৈত্রী, যুবমৈত্রী (মার্কসবাদী), শ্রমিক ফেডারেশন, যশোর উদীচী শিল্পগোষ্ঠী, যশোর সাহিত্য পরিষদ, টিইউসি, দৈনিক প্রতিদিনের কথা, সুরবিতান, কিংশুক, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (তৃতীয় মত), বাসদ (মার্কসবাদী), জাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে চিরবিদায় জানানো হয়।

এদিকে, মোস্তাফিজুর রহমান কাবুলের মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যাকরী সভাপতি ও যশোর জেলা সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রবিউল আলম, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা অশোক কুমার রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফ আহমেদ বাপী, সদর উপজেলা শাখার সভাপতি আহসান উল্লাহ ময়না, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান বাবর।

এছাড়া, মোস্তাফিজুর রহমান কাবুলের মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) যশোর জেলা কমিটির সভাপতি নাজিমউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান ভিটু, বিবর্তন যশোরের সভাপতি সানোয়ার আলম খান দুলু ও সাধারণ সম্পাদক আতিকুজ্জামান রনি, বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রী মানবিক সহায়ক কমিটির আহবায়ক মাহমুদ হাসান বুলু, সদস্য সচিব মামুনুর রশীদ, যুব মৈত্রী কেন্দ্রীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহবায়ক মাসুদুর রহমান, শেখ আলাউদ্দিন, রুহুল আমিন ও হুমায়ুন কবির সেতু।

স্বাআলো/এসএ