শুরু কোরবানির অনলাইন

ডেস্ক রিপোর্ট: করোনা আতঙ্ক বেড়েই চলেছে। এরই মধ্যে দুয়ারে উকি দিচ্ছে ঈদূল আযহা। কোরবানির পশু কেনার ব্যস্ততা বেড়ে চলেছে সাধারণের। তবে স্বাস্থ্যবিধির কথা কি স্মরণ আছে কারো? তাই অনলাইনে কেনাকাটার সিদ্ধান্ত নিযেছে প্রশাসন। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে কোরবানির পশু বিক্রির অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ডিজিটাল হাট চালু হয়েছে। উত্তর সিটি করপোরেশনের সঙ্গে সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ ডেইরি ফার্ম অ্যাসোসিয়েশন যৌথভাবে এই ডিজিটাল হাট বাস্তবায়ন করছে।

গতকাল শনিবার এ প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধনে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। এতে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ই-ক্যাবের প্রেসিডেন্ট শমী কায়সার।

ই-ক্যাবের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ক্রেতারা ডিজিটাল হাট থেকে ন্যায্যমূল্যে ক্রয়কৃত কোরবানির পশু ঢাকার ৫টি এলাকা থেকে মাংস প্রক্রিয়াকরণ করে নিজ নিজ ঠিকানায় ডেলিভারি নিতে পারবে।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকা শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত গরু হাটগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। শহরের পাশ ঘেঁষে কয়েকটা মাত্র হাটে গরু বিক্রি করা হবে। নগরবাসী গরু হাটে যতটা সম্ভব কম যান। ডিজিটাল হাটের আওতায় গরু বিক্রি ছাড়াও প্রায় ২ হাজার গরু জবাই করে এবং মাংস প্রক্রিয়া করে বাসায় পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা রেখেছি। ঈদের দিন ৪০০, দ্বিতীয় দিন ১০০০ এবং তৃতীয় দিন ৬০০ গরু প্রস্তুত করার সক্ষমতা রয়েছে।

ই-ক্যাব কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ক্রেতা ও বিক্রেতার মধ্যে আস্থা তৈরি ও ঘরে বসে অনলাইনে পশু কেনাকাটার ব্যাপারে মানুষকে আগ্রহী করে তুলতে নির্দিষ্ট নীতিমালা মেনে সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

ডিজিটাল হাটে যেতে ক্লিক করুন http://digitalhaat.net

স্বাআলো/জি