স্বাস্থ্যখাতে তিনধাপের গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আসছে

ডেস্ক রিপোর্ট: অবশেষে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পরিবর্তনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর আগে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ছোটখাটো পরিবর্তন হলেও এবার ব্যাপকভাবে পরিবর্তন হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পরিবর্তন সংক্রান্ত একটি চূড়ান্ত রূপরেখা তৈরি করা হয়েছে এবং এটা প্রধানমন্ত্রীর কাছে দেয়া হবে। এই রূপরেখা যদি তিনি অনুমোদন করেন তাহলেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিবর্তনগুলো হবে বলে একাধিক দায়িত্বশীল নিশ্চিত করেছে।

সরকারের এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, হুটহাট করে পরিবর্তনের পক্ষে নয়, বরং যে পরিবর্তন ইতিবাচক হবে সেই পরিবর্তনের পক্ষেই সরকার। তবে সাম্প্রতিক সময়ে একের পর এক ঘটনায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ইমেজ সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে, জনআস্থার সঙ্কট দেখা দিয়েছে। এই বাস্তবতায় সরকারের একাধিক নীতিনির্ধারক মনে করেন যে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিবর্তন ছাড়া জনআস্থা সম্ভব নয় এবং দীর্ঘদিন ধরে এই পরিবর্তন যদি না হয় তাহলে জনগনের মাঝে নেতিবাচক ধারণাও তৈরি হতে পারে। এই বাস্তবতায় সরকারের পক্ষ থেকে সরকারের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পরিবর্তনের একটি রূপরেখা চূড়ান্ত করেছে।

আগামী ২/১ দিনের মধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন পর্যায়ের বিভিন্ন কর্মকর্তা পরিবর্তন হবেন, যাঁদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট দুর্নীতির অভিযোগ আছে এবং যারা সিন্ডিকেট করে অপকর্মগুলো করছে এরকম কিছু পদে থাকা ব্যক্তিদের সরিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ ইতিমধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের তালিকা করেছে এবং তাঁদেরকে একযোগে সরিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। এটা হবে পরিবর্তনের প্রথম ধাপ এবং এটা আগামী ২/১ দিনের মধ্যে হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এর দ্বিতীয় ধাপে পরিবর্তন হবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে এর আগেই পরিবর্তন করা হতো, তবে নানারকম জটিলতার কারণে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে এখনো রেখে দেওয়া হয়েছে। প্রথম ধাপে যখন তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল তখন তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, তখন মানবিক বিষয়টি বিবেচনা করা হয়েছিল। এরপর যখন তাঁকে পরিবর্তনের ক্ষেত্রে সরকার কতগুলো বাস্তবতা বিচার-বিশ্লেষণ করেছিল, তাঁর বদলে কাকে নেওয়া হবে সেটা নির্ধারণ করতেও সময় লেগেছে বলে জানিয়েছে সরকারের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তৃতীয় ধাপে যে পরিবর্তনের কথা শোনা হচ্ছে তা হচ্ছে মন্ত্রণালয়ের পরিবর্তন। মন্ত্রিসভার একটি রদবদলের কথা ব্যাপকভাবে আলোচিত হচ্ছে এবং এই রদবদলটি নানা কারণে বারবার পিছিয়ে গেছে বলে সরকারের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে।

বাজেটের পর সংসদ অধিবেশন চলেছিল, সংসদ অধিবেশনের পরপরই মন্ত্রিসভায় রদবদলের কথা ছিল বলে সরকারের একটি সূত্র জানিয়েছে। ঐ সময়ে আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা এডভোকেট সাহারা খাতুনের মৃত্যুর পর আবার সেটা আবার ধাক্কা খেয়েছে।

জানা গেছে, খুব স্বল্পতম সময়ের মধ্যেই হয়তো মন্ত্রিসভায় রদবদল হবে। এই রদবদলের ঢেউ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে লাগবে বলেও সরকারের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে। এর ফলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় একটি নতুন নেতৃত্বের আওতায় আসবে। এইসব পরিবর্তনের ফলে করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যে ইমেজ সঙ্কট হয়েছে, সেই সঙ্কট দূর হবে বলে সরকারের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে।

সরকারি সূত্রগুলো বলছে, বাংলাদেশ যেভাবে করোনা মোকাবেলা করছে তা নিয়ে জনঅসন্তোষ বা অনাস্থা তৈরি হতো না যদি না স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এই দুর্নীতি, অপকর্মের একের পর এক খবর গণমাধ্যমে না আসতো। বিশেষ করে জেকেজি, রিজেন্ট, মিঠুর ঘটনা শুধু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের না, সরকারের সাফল্যকেও প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। এজন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে জনআস্থায় আনার জন্য সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছে সরকারের একাধিক সূত্র।

স্বাআলেঅ/ডিএম