চৌগাছায় মাদ্রাসার জমি দখল করে আ.লীগ নেতার ঘর নির্মাণ

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি: যশোরের চৌগাছায় একটি মাদ্রাসা ও ঈদগাহের জমি দখল করে আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুল ইসলাম পাকা ঘর নির্মাণ করছেন। বিষয়টি নিয়ে মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও শিক্ষকরা অভিযুক্ত শহিদুল ইসলামের সাথে কথা বললেও তিনি তাতে কর্ণপাত করেননি।

উপজেলার আরাজি সুলতানপুর গ্রামের ঈদগাহ ও নুরানী মাদরাসার এই জমি দখলের ঘটনা ঘটেছে। আর অভিযুক্ত শহিদুল ইসলাম উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক।

আরো পড়ুন>>>চৌগাছায় মেম্বারের বিরুদ্ধে বয়স্ক-বিধবা-প্রতিবন্ধী ভাতা কার্ড দিতে টাকা আদায়ের অভিযোগ

মাদ্রাসাটির সভাপতি গোলাম রসুল বলেন, ‘মাদ্রাসা ও ঈদগাহের জমি দখল করে শহিদুল ইসলাম পাকাঘর নির্মাণ  করছেন। আমরা নির্ষেধ করলেও তিনি শোনেন না। জোর করে দখল করে নিয়েছেন। এর আগে মাদ্রাসার কয়েকটি দোকান শহিদুল ইসলামের ভাইয়েরা দখল করে নিয়েছেন।’

অভিযুক্ত শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ঘর আমি করছি। জমিটি মাদ্রাসা ও ঈদগাহের। তবে মাদ্রাসাটি এখন আর চলে না।’

হাকিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুল হাসান বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। মাদ্রাসাটির সভাপতি ও শিক্ষকরা শহিদুল ইসলামের কাছে গেলে তোদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেছেন। আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি জানিয়ে  ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সুপরিশ করবো।’

স্বাআলো/এসএ