চুয়াডাঙ্গায় এমপি ও মেয়র পক্ষ মুখোমুখি

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গায় ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে সরকারি চাল বিতরণকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষে মধ্যে উত্তেজনা সৃস্টি হয়েছে। আজ বুধবার স্থানীয় সংসদ সদস্য ও পৌরসভার মেয়র পক্ষের নেতাকর্মীরা পাল্টা-পাল্টি মানববন্ধন করেছেন।

মানববন্ধনের আগে উভয় পক্ষের নেতকর্মীরা হামলা ও মারপিটের শিকার হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পৌর এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আজ বুধবার বেলা ১১ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সোলায়মান হক জোয়ার্দার ছেলুন এমপির সমর্থকরা পৌরসভার সামনে মানববন্ধন করেন। তাদের দাবি মেয়রের লোকজন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নির্যাতন করেছেন।

সংসদ সদস্যেরর ছোট ভাই জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম টোটন দাবি করেন, পৌরসভায় সংসদ সদস্যসের দুইজন প্রতিনিধিকে না জানিয়ে চাল বিতরণ করা হয়েছে। বিষয়টির প্রতিবাদ জানাতে আমি আলাইদ্দিন হেলাসহ পৌরসভায় যাই। কিন্তু মেয়রের লোকজন আমাদের লাঞ্ছিত করে। বিষয়টি জানতে পেরে মঙ্গলবার দুপুরে সংসদ সদস্য নিজে যান পৌরসভায়। কিন্তু তার সাথেও খারাপ ব্যবহার করা হয়েছে।

এদিকে, দুপুর একটার দিকে পৌরসভার মেয়র স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপুর নেতৃত্বে পৌরসভার সামনে পাল্টা মানববন্ধন করেছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় মেয়র বলেন, চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের এমপি তার ক্যাডার বাহিনী নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে পৌরসভায় আসেন। এসময় ঈদ-উল-আজহা উপলক্ষে সরকারের দেয়া চার হাজার ৬২১টি ভিজিএফ কাডের্র বিপরতে ৪৬ দশমিক ২১০ মেট্রিকটন চাল বিতরণের কাজ চলছিল। সংসদ সদস্য পৌরসভায় উপস্থিত হয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জানিফকে ধাক্কা মেরে সেখান থেকে বের করে দেন।

মানববন্ধনে পৌরসভার সব কাউন্সিলসহ কর্মকতা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাআলো/ডিএম