যশোরে বঙ্গমাতার জন্মদিনে আ.লীগ, যুবলীগের নানা আয়োজন

যশোর: যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন বলেছেন, ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবকে বাদ দিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস রচনা করা যাবে না। বঙ্গমাতা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সকল সুখ-দুঃখের বন্ধু। জেল, জুলুমসহ সব ধরনের অত্যাচার-নির্যাতনে তিনি বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে সাহস যোগাতেন। তাই বাংলাদেশের ইতিহাসের সাথে বঙ্গমাতার নাম জড়িয়ে আছে।’

আজ শনিবার যশোর ২নং আইনজীবী সমিতি ভবনে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকীতে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বঙ্গমাতা স্কুলের গন্ডি পার হননি। কিন্তু তিনি জ্ঞানী ও বুদ্ধিমতি ছিলেন। তিনি সন্তানদের উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করেছেন। পাকিস্তানবিরোধী আন্দোলন সংগ্রাম করতে যেয়ে বঙ্গবন্ধুর তার জীবনের অধিকংশ সময় জেলখানায় পার করেছেন। আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তারই পরিশ্রমের ফসল।’

কেন্দ্রীয় মহিলালীগের সদস্য লাইজুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও মহিলা লীগ নেত্রী সাকিলা আফরোজ মিমির সঞ্চলনায় এসময় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী রায়হান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য মেহেদী হাসান মিন্টু, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সুখেন মজুমদার, সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল, সাবেক সদস্য আবুল হোসেন খান, জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন, জেলা পরিষদ সদস্য হাজেরা বেগম, নওয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাসরিন সুলতানা খুশি, পৌর কাউন্সিলর মোকছিমুল বারী অপু, শহর আওয়ামী লীগনেতা লুৎফুল কবীর বিজু, জেলা যুবলীগের সদস্য কেরামত আলী, মহিলালীগ নেতী নাছিমা সুলতানা মহুয়া, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আলমগীর হোসেন, সরকারি এমএম কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমরান হোসেন, ছাত্রলীগনেতা রিফাতুজ্জামান রিফাত প্রমুখ।

এর আগে যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে শহর ও সদর উপজেলা যুবলীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত জেলা সভাপতি সৈয়দ মুনির হোসেন টগর। প্রধান বক্তা ছিলেন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শেখ রফিকুল ইসলাম রফিক।

শহর যুবলীগের আহবায়ক মাহামুদুল হাসান মিলুর সভাপতিত্বে ও সদর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মাজহারুল ইসলাম মাজহারের সঞ্চলনায় এসময় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগের যুগ্ম-সম্পাদক কামাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মঈন উদ্দিন মিঠু, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক শুভল রায়, সদস্য শেখ জাহিদুর রহমান লাবু, সদর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য ফারুক হোসেন, আব্দুর রাজ্জাক, আসাদুজ্জামান আসাদ, ইছালী ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক সাহাবার হোসেন, কচুয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক ইশারত হোসেন, নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক আল মাহমুদ প্রমুখ।

এদিকে, শনিবার সকালে কাশিমপুর ইউনিয়নে দিবসটি উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। এসময় প্রধান অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য মেহেদী হাসান মিন্টু।

কাশিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহিদুর রহমান শহীদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমানের সঞ্চলনায় বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি আবুল হোসেন খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আয়ুব হোসেন, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আসাদুজ্জামান, ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন, ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মঈনুল হাসান, ইবাদ আলী প্রমুখ।

স্বাআলো/ডিএম