গলায় ছুরি ধরে গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে এক গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে চার যুবকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন ওই গার্মেন্টস কর্মী। তবে তদন্তের স্বার্থে পুলিশ অভিযুক্তদের নাম প্রকাশ করেনি।

ওই গার্মেন্টস কর্মী জানান, তিনি সোনারগাঁ উপজেলার কাঁচপুর এলাকায় স্কয়ার নিট কম্পোজিট নামে পোশাক প্রস্তুতকারী একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। সোনাপুরে একটি ভাড়াবাসায় স্বামীকে নিয়ে বসবাস করেন।

গত শনিবার (৮ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টার দিকে শ্বশুরবাড়ি আড়াইহাজার উপজেলার খাগকান্দা ইউনিয়নের তেতৈই তলার উদ্দেশে রওনা হন। রাত সাড়ে ১০টার দিকে স্থানীয় কাকরাইল মোড়া এলাকায় খেয়াঘাট পার হয়ে বাসস্ট্যান্ডে রিকশার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। এ সময় হঠাৎ চার যুবক তাকে তার শ্বশুরবাড়িতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলেন। পরে তিনি তাদের সঙ্গে রওনা হন।

তিনি বলেন, চার যুবকের মধ্যে দুইজন হঠাৎ আমার চোখে ও মুখে কাপড় পেঁচিয়ে গলায় ছুরি ধরে জিম্মি করে। অন্য দুই যুবক আমাকে উঠিয়ে নিয়ে যায়। তারা আমাকে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে দুই ঘণ্টাব্যাপী পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

ওই গার্মেন্টস কর্মীর স্বামী জানান, শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটলেও প্রথমে তার স্ত্রী লোকলজ্জার ভয়ে চেপে যান। পরদিন সকালে তার স্ত্রী কর্মস্থলে চলে যান। পরে এ নিয়ে এলাকায় গুঞ্জন শুরু হয়। পরে তিনি স্ত্রীর কাছ থেকে ঘটনাটি জানতে পারেন এবং মামলার সিদ্ধান্ত নেন।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় ওই গার্মেন্টস কর্মী বাদী হয়ে চার যুবককে আসামি করে একটি মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

স্বাআলো/এসএ