প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবি

নতুন করে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের আর কোনো সুযোগ নেই জানিয়ে সম্প্রতি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষকরা। তারা অতিদ্রুত এ প্রজ্ঞাপন বাতিল দাবি করেছেন। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচির হুমকি দিয়েছেন শিক্ষকরা।

বুধবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে প্রায় দুই হাজার নারী ও পুরুষ শিক্ষক সমবেত হয়ে বিক্ষোভ করেন।

জাতীয়করণ বঞ্চিত বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতা ইকবাল হোসেন বলেন, সম্প্রতি নতুন করে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের আর কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এর প্রতিবাদে আমরা মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করছি। তিনি বলেন, অতিদ্রুত প্রজ্ঞাপনটি বাতিল করে বেসরকারি বিদ্যালয়গুলো জাতীয়করণের ব্যবস্থা নিতে হতে।

নীলফামারী থেকে আসা এক শিক্ষক বলেন, সারাদেশ থেকে চার হাজারের বেশি আমরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৬ হাজার শিক্ষক এখানে উপস্থিত আছি। আমাদের বিদ্যালয়গুলো জাতীয়করণ করতে হবে-এটাই হচ্ছে আমাদের মূল দাবি।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া এক নারী শিক্ষক বলেন, সম্প্রতি জারি হওয়া এই বিজ্ঞপ্তি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বাতিল না করা হলে সারা বাংলাদেশ থেকে সব শিক্ষক পরিবার আন্দোলনে মাঠে নামবে। কারণ আমরা গত দু’বছর ধরে কয়েক দফায় অনশন করেছি এ দাবি নিয়ে। তখন আমাদেরকে সরকার আশ্বাস দিয়েছে কিন্তু এখন বলছে জাতীয়করণ করার সুযোগ নেই। এই বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়ার কারণে আমরা শোকাহত এবং মর্মাহত।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া আরেক নারী শিক্ষক বলেন, আমাদের পেটে ক্ষুধা। করোনার মধ্যে আমরা খাবার পাচ্ছি না। সরকার রোহিঙ্গাদের খাবার দিচ্ছে কিন্তু আমাদের বিষয়টা ভেবে দেখছে না। অতিদ্রুত যদি এটা বাতিল না করা হয় তাহলে আমরা কঠোর আন্দোলনে নামব।

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন আন্দোলনকারী শিক্ষকরা।

স্বাআলো/এসএ