চাকরির আশ্বাসে প্রতারণা, গ্রেফতার ১৪ প্রতারক

14

চাকরি দেয়ার নামে ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে নিয়োগ দিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিল একটি চক্র। এমন অভিযোগের পেয়ে রাজধানীর মিরপুর ও মোহাম্মদপুর এলাকা হতে ভুয়া চাকরিদাতা তিন প্রতিষ্ঠানের ১৪ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৪।

র‍্যাব জানায়, ‘দিকরা সিকিউরিটি অ্যান্ড লজিস্টিক সার্ভিসেস লিমিটেড’ নামক একটি কোম্পানি চাকরিপ্রার্থী মানুষের কাছ থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব রবিবার বিকাল রাত পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করে, দিকরা সিকিউরিটি অ্যান্ড লজিস্টিক সার্ভিসেস লিমিটেড, পল্লবী, আনোয়ারা লজিস্টিক অ্যান্ড সিকিউরিটি সার্ভিসেস লিমিটেড, সেনপাড়া, কাজীপাড়া, আনোয়ার লজিস্টিক অ্যান্ড সিকিউরিটি সার্ভিসেস লিমিটেড, আদাবর, মোহাম্মদপুর এ তিনটি শাখা হতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ভুয়া চাকরিদাতা প্রতারক চক্রের ১৪ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করা হয় এবং ৪৪ জন ভুক্তভোগী চাকরিপ্রার্থী উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মামুন হোসেন বিল্লাল (৩৬), উজ্জ্বল মিয়া (২৫), শরিফুল ইসলাম (২২), সোহাগ খাঁন (২২), আমানুল ইসলাম (২২), জাকির হোসেন (২৪), রায়হান (২০), ফোরকান উদ্দীন (৩০), মনিরুল ইসলাম (২৪), রাহাত হাওলাদার (২৪), আহাদ (২৫), আবু রায়হান (২২), সাহিবুর রহমান (২২) এবং আলিফ হোসেন (২০)।

এ সময় গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ২৪টি ভর্তি ফরম বই, ১০টি ভিজিটিং কার্ডের বক্স, ৭০ পাতার চাকরির নিয়োগ ফরম, ৭টি ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, ৯৭ হাজার টাকা, ৫টি রেজিস্টার, ১টি নোট বুক, ১টি খাতা, ৫২ সেট চাকরিপ্রার্থীর জীবন বৃত্তান্ত, ৮টি সিল, ২টি পরিচয়পত্র, ৫টি ভুয়া পোস্টিং ফরম জব্দ করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অফিস ভাড়া করে বিভিন্ন নামে প্রতিষ্ঠান খুলে দেশের বিভিন্ন জায়গায় মধ্যশিক্ষিত বেকার ও নিরীহ যুবকদের চাকরি দেয়ার নাম করে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে দীর্ঘদিন থেকে প্রতারক চক্রটি নিরীহ ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছে।

আসামিদের আরো জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এই প্রতারক চক্রের মুল হোতা মামুন হোসেন বিল্লাল (৩৬), জেলা-বরিশাল। তার তত্ত্বাবধানে উপরোক্ত ৩টি ভুয়া প্রতিষ্ঠান পরিচালিত হতো। মামুন ছাড়াও পলাতক আরো ৪/৫ জন এই প্রতারণার কাজে জড়িত। এছাড়াও পলাতকদের গ্রেফতারের জোড় প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

স্বাআলো/এসএ