পরিবারের সদস্যদের সামনে গৃহকর্তাকে কৃপিয়ে হত্যা

15

নরসিংদী : নরসিংদী পবরবারের সদস্যদের সামনে রবিউল্লাহ (৪৫) নামের এক জনকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে এক দুর্বৃত্ত। রোববার  রাতে নরসিংদী শহরের কামারগাঁওয়ে  এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত রবিউল্লাহ ইউএমসি জুটমিলের একজন স্থায়ী শ্রমিক ছিলেন। পাটকলটি বর্তমানে বন্ধ থাকায় ঘটনার সময় বাড়িতেই অবস্থান করছিলেন তিনি।

স্থানীয় লোকজন ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান,  রবিউল্লাহর ছোট ছেলে টেক্সটাইল মিলের শ্রমিক সজীব (২০) প্রায় দিনের মত আজ বিকেলেও স্থানীয় একটি মাঠে বন্ধুদের সঙ্গে ফুটবল খেলতে যায়। সেখানে খেলার সময় বিকেল ৫টার দিকে রোহান (২০) নামের এক যুবকের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়।

উপস্থিত লোকজন বিষয়টি মীমাংসা করে দু’জনকে মিলিয়ে দেন। পরে সাড়ে ৫টার দিকে সজীব বাড়িতে এসে কাজে চলে যায়। কিন্তু রাতের দিকে রোহান একটি চাপাতি নিয়ে উত্তেজিত অবস্থায় সজীবদের বাড়িতে ঢোকে। এ সময় সজীবকে না পেয়ে তার বাবা রবিউল্লাহর ঘাড়ে ও কপালে চাপাতি দিয়ে কোপ দেয়। এতে রবিউল্লাহ মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এ সময় উপস্থিত ব্যক্তি, পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা তাকে নিয়ে নরসিংদী সদর হাসপাতালে রওয়ানা হলে পথেই তিনি মারা যান।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক  আবদুল বাকীর বলেন, আমরা ম রবিউল্লাহকে মৃত অবস্থায় পেয়েছি। তার ঘাড়ের বাম পাশে বড় আঘাতসহ কপালে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে।

নরসিংদী  থানার ওসি বিপ্লব কুমার দত্ত চৌধুরী জানায়, ফুটবল খেলায় কথা কাটাকাটির জের ধরেই এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ নরসিংদী সদর হাসপাতালে গিয়ে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। যার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওই যুবককে আটকের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে।

স্বাআলো/কে