বিয়ে করার সঠিক সময় কি এখন!

3

কথায় বলে জন্ম, মৃত্যু আর বিয়ে এই তিনটি বিষয় নিয়ে নাকি মানুষের জীবন। প্রাচীন কালে অনেক ছোটোবেলাতেই একজন ছেলের বিয়ে দিয়ে দেয়া হতো। কিন্তু যুগ পাল্টেছে! এখন একজন পুরুষ অনেক চিন্তাভাবনা করে তবেই বিয়ের পিড়িতে বসেন। জেনে নেয়া যাক এমন কিছু মাপকাঠি যেগুলোর ভিত্তিতে একজন পুরুষ নিশ্চিত হতে পারবেন যে এটাই বিবাহের উপযুক্ত সময়।

১. কেরিয়ার গুছিয়ে নিয়ে: একজন সচেতন পুরুষের কেরিয়ার অনেক তাড়াতাড়িই তৈরি হয়ে যায়। কিন্তু অনেকেরই তা হয় না। তাই কেরিয়ার গুছিয়ে নিয়ে তবেই বিয়ের দিকে পা বাড়ানো ভালো। আপনার কেরিয়ার যদি পুরোপুরি তৈরি হয়ে যায় তাহলে ভাববেন এখন আপনি চাইলে বিয়ে করতে পারেন।

২. আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল হলে; একটা বিয়ের অনেক রকম খরচ থাকে, বিয়ের সময় যেমন থাকে আবার বিয়ের পরেও প্রচুর খরচ থাকে। এইসমস্ত খরচ বহন করার মত সামর্থ্য যদি আপনার এসে থাকে তাহলে আপনি এবার বিয়ের প্রস্তুতি নিতে পারেন।

৩. মনের মতো কাউকে খুঁজে পেলে: আজকাল এই ধরনের সমস্যা খুবই দেখা যায় যে বিয়ে করতে চাইছেন ঠিকই কিন্তু ঠিক মনের মত মেয়ে খুঁজে পাচ্ছেন না। তাই মনের মতো কাউকে খুঁজে পেলে এবার বিয়ের কথা ভাবতেই পারেন।

৪. বাবা মায়ের বয়স হয়ে গেলে: বাবা মায়ের অনেক বয়স হয়ে গেলে বিয়ের চিন্তা করতেই পারেন। এমন যদি হয়ে থাকে যে বাবা মায়ের অনেক বয়স হয়েছে, তারা অসুস্থ। তাহলে একজন পুরুষ ভাবতে পারেন যে এখন বিয়ে করা যেতে পারে।

৫. একাকীত্ব কাটাতে: মানুষ বেশিদিন একা থাকতে পারে না। এ কারণে আপনি যদি মনে করেন আপনার জীবনের সব ধরনের পরিকল্পনাই বাস্তবায়িত করে ফেলেছেন, কিন্তু একা জীবনে বেশ বিষণ্ণতায় কাটছে আপনার সময় তাহলে ভেবে নিন আপনার এখন বিয়ে করা প্রয়োজন। তাই একাকীত্ব কাটাতে করে ফেলতে পারেন বিয়ে।

স্বাআলো/আরবিএ