প্রাথমিকে আসছে বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, চুক্তি সম্পন্ন

13

সারাদেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিশাল নিয়োগ আসছে শিগগির। ৩২ হাজার ৫৭৭টি শূন্যপদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পত্রিকা এবং ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। এজন্য টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেড’র সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর।

বৃহস্পতিবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সোহেল আহমেদের উপস্থিতিতে পরিচালক (পলিসি ও অপারেশন) খালিদ আহমেদ টেলিটকের সাথে এই সমঝোতা স্মারকটি স্বাক্ষর করেন।

তথ্যমতে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শূন্যপদে ৩২ হাজার ৫৭৭ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে। এসব পদের মধ্যে প্রাক-প্রাথমিক স্তরের জন্য ২৫ হাজার ৬৩০ জন এবং প্রাথমিক স্তরের জন্য সহকারী শিক্ষক হিসেবে ৬ হাজার ৯৪৭ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, সারাদেশে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষকের শূন্যপদ এবং গত জুন মাস থেকে এখন পর্যন্ত সহকারী শিক্ষকের পদ শূন্য হয়েছে এসব পদের বিপরীতে নিয়োগ দেয়া হবে।

গত রবিবার অধিদফতরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সোহেল আহমেদ বলেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা জারির পর আমরা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের কাজ শুরু করেছি। সবকিছু ঠিক থাকলে চলতি মাসের মধ্যেই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।

এর আগে ২০১৮ সালের ৩০ জুলাই সর্বশেষ সহকারী শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এতে মোট উত্তীর্ণ হন ৫৫ হাজার ২৯৫ জন, নিয়োগে দেয়া হয় ১৮ হাজার ১৪৭ জনকে। এর আগে একই বছর ২০১৪ সালের স্থগিত পরীক্ষাটিও নেয়া হয়। ওই পরীক্ষায় মোট উত্তীর্ণ হন ২৯ হাজার ৫৫৫ প্রার্থী। এর মধ্যে নিয়োগ দেয়া হয় ৯ হাজার ৭৬৭ জনকে।

এই দুই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েও চূড়ান্ত নির্বাচিত না হওয়ায় নিয়োগ পাননি ৫৬ হাজার ৯৩৬ প্রার্থী। উত্তীর্ণ এসব প্রার্থীরা ২০১০-২০১১ সালের মতো প্যানেল নিয়োগ চান। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম-আল-হোসেন বলেন, প্যানেলে নিয়োগ দেয়া হবে না। নতুন করে বিজ্ঞপ্তি দেয়া হবে।

স্বাআলো/এসএ