বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত, সীমান্তে উত্তেজনা

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গায় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে অমেদুল হোসেন (২৮) নামে এক বাংলাদেশি যুবক নিহত হয়েছেন।

আজ রবিবার ভোর ৪টার দিকে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত অমেদুল হোসেন ঠাকুরপুর গ্রামে বাড়ি। এ ঘটনার পর ওই সীমান্তে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর গ্রামের অমেদুল হোসেনসহ ৫-৬ জন গরু ব্যবসায়ী রবিবার ভোর ৪টার দিকে ঠাকুরপুর সীমান্তের ৮৯নং মেইন পিলারের কাছ দিয়ে অবৈধভাবে সীমান্ত পার হয়ে ভারতে প্রবেশ করছিলেন।

এ সময় ভারতের হুদাপাড়া ক্যাম্পের টহলরত বিএসএফ সদস্যরা তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। অন্যরা পালিয়ে এলেও গুলিবিদ্ধ হয়ে অমেদুল হোসেন ঘটনাস্থলে নিহত হন। বর্তমানে তার লাশ ভারতের একশ গজ অভ্যন্তরে হুদাপাড়া সীমান্তে পড়ে আছে।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ খালেকুজ্জান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের লাশ ফেরত চেয়ে এবং এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বিএসএফের কাছে চিঠি দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত পতাকা বৈঠকের বিষয়ে বিএসএফ এর পক্ষ থেকে কোনো সাড়া পায়নি বিজিবি। তবে, আশা করা হচ্ছে যেকোনো সময় পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বিএসএফ ওমিদুললের লাশ ফেরত দিতে পারে।

স্বাআলো/আরবিএ