কুড়িগ্রামে প্রতিবেশীকে হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদণ্ড

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে প্রতিবেশীকে হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে জেলা ও দায়রা জজ আদালত। ২০০৮ সালে সংঘটিত এ হত্যাকাণ্ডের অপরাধে অভিযুক্ত একমাত্র আসামি মাহালম মিয়াকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল মান্নান।

মঙ্গলবার দুপুরে এ আদেশ দেন তিনি।

পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্রাহাম লিংকন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পূর্ব বিরোধ মিমাংসা করতে স্থানীয়রা দুই পক্ষকে নিয়ে সালিশের আয়োজন করে। সালিশ চলার এক ফাঁকে মাহালম মিয়া নিজের কাছে থাকা দা দিয়ে প্রতিপক্ষ আমিনুর ইসলামের মাথায় ও বাহুতে কোপ মারে। গুরুতর জখম হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন আমিনুর। উপস্থিত লোকজন ঘাতক মাহালমকে আটক করে পুলিশে দেয়। গুরুতর আহত আমিনুরকে নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে ২২ দিন চিকিৎসাধীন থেকে মারা যান আমিনুর।

নিহত আমিনুর ইসলাম (২৩) জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার কুটি বামনডাঙা গ্রামের বাসিন্দা। আসামি মাহালম মিয়া (৪৮) একই গ্রামের বাসিন্দা।

ঘটনার প্রায় ১২ বছর পর আসামির অনুপস্থিতিতে আজ মামলার রায় ঘোষণা করা হলো। মামলায় আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন এ টি এম এরশাদুল হক চৌধুরী শাহীন।

স্বাআলো/এসএ