স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে যশোর সদরে ভোটগ্রহণ

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সদর উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু করেছে।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে উপজেলার ১৭৫টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে এই ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী নুরজাহান ইসলাম নীরা ও ধানের শীষের নূর-উন-নবী প্রতিদ্বন্দ্বি করছেন। উপজেলার সাড়ে পাঁচ লক্ষাধিক ভোটার তাদের ভোটারাধিকার প্রয়োগ করবেন।

আরো পড়ুন>>>  ভোট দিলেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুল

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় পাঁচ লাখ ৬০ হাজার ৫২৪ জন ভোটার রয়েছেন। যারা ১৭৫টি কেন্দ্রে ভোট দেবেন। ভোট পরিচালনার জন্য ১৭৫ জন প্রিজাইটিং অফিসার ও এক হাজার ১৩ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

এবারের নির্বাচনে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে এক হাজার ৫০০ জন পুলিশ সদস্য এবং দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। দুইজন জুডিসিয়াল ও ১৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া ১৮টি মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্সের ছয়টি নির্বাচনের মাঠে সার্বক্ষণিক কাজ করছেন।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর যশোর সদর উপজেলাসহ দেশের ৮টি উপজেলার চেয়ারম্যান ও দুইটি উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যানের শূন্যপদে নির্বাচনে চারজন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে যাচাই-বাচাইকালে বিএনপির স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহিত কুমার নাথের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়।

উল্লেখ্য, যশোর-৬ আসনের উপ-নির্বাচনে সংসদ সদস্য পদে নির্বাচনের আগে শাহীন চাকলাদার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করেন। এরপর নির্বাচন কমিশন যশোর সদর উপজেলার চেয়ারম্যান পদটি শুন্য ঘোষণা করে।

স্বাআলো/এসএ