ধর্মের কারণে অবসর নেয়ার খবরকে মিথ্যা বললেন পগবা

সোমবার প্রকাশ হয়, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর ইসলামবিদ্বেষী মন্তব্যের পর ফ্রান্সের জার্সিতে আর খেলবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দেশটির মুসলিম তারকা ফুটবলার পল পগবা।

বিষয়টি নিয়ে ফুটবলবিশ্বে তোলপাড় চলছে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও দিনব্যাপী বিষয়টি তুমুল চর্চিত। যদিও দিন শেষে এমন খবর অস্বীকার করে তা মিথ্যা সংবাদ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন পল পগবা।

এমন কোনো বক্তব্য তিনি দেননি বলে জোর দাবি করেছেন পগবা। শুধু তাই নয়, কোনোরকম সত্যতা যাচাই না করে সংবাদ প্রকাশ করায় সংবাদমাধ্যম দ্য সানের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এই মিডফিল্ডার।

তাকে নিয়ে দ্য সানে প্রকাশিত সংবাদটি ভুয়া জানিয়ে নিজের অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুক পেজে বিশদ পোস্ট দেন পল পগবা। যেখানে দ্য সানকে ধুয়ে দেন তিনি।

এছাড়া ভুয়া খবর সংবাদ প্রচারের জন্য দ্য সানের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবেন বলে হুমকি দেন ২৭ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার।

বাংলাদেশ সময় সোমবার সন্ধ্যায় নিজের ইনস্টাগ্রামে পগবা লেখেন, দ্য সান আবারো একই কাজ করলো। আমার সম্পর্কে তারা শতভাগ মিথ্যা একটি সংবাদ প্রকাশ করলো, যেটা এরইমধ্যে বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়েছে।

অথচ এ ধরনের কোনো কথা আমি কখনো বলিনি। চিন্তাও করিনি। আমি হতবাক, ক্ষুব্ধ, বিস্মিত এবং হতাশ হয়েছি এই সংবাদের কারণে। ভুয়া ও মিথ্যা শিরোনাম দিয়ে তারা আমাকে ফ্রান্সে চলমান স্পর্শকাতর ইস্যুর সঙ্গে যুক্ত করেছে। ফ্রান্সের বর্তমান পরিস্থিতিতে আমার ফুটবল খেলার সঙ্গে ধর্মবিশ্বাসকে টেনে এনেছে।

এরপর পগবা লেখেন, আমি সব সময়ই সব ধরনের সন্ত্রাস এবং সহিংসতার বিপক্ষে। আমার ধর্ম অবশ্যই সব সময় শান্তি ও ভালোবাসার এবং অবশ্যই সম্মান পাওয়ার যোগ্য। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে কিছু মিডিয়া সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিচ্ছে না।

তারা কোনোভাবে যাচাই না করেই সংবাদ লিখছে। তারা এমন গুজবের সৃষ্টি করছে, যা আমার ব্যক্তিগত জীবনকে মারাত্মকভাবে ব্যাহত করছে। আমি এই ভুয়া সংবাদ প্রকাশক এবং প্রচারকের বিপক্ষে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করবো।

প্রসঙ্গত,রাশিয়ায় ২০১৮ সালে ফ্রান্সকে দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন পগবা। ফ্রান্সের জার্সি গায়ে ৭২তম ম্যাচ খেলে ১০ গোল করেছেন ২৭ বছর বয়সী এ মিডফিল্ডার।

স্বাআলো/এস