করোনার দ্বিতীয় ঢেউ, তিন দেশে লকডাউন জারি

করোনার সংক্রমণ বিপজ্জনকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় ফের লকডাউনে ফিরেছে জার্মানি, ফ্রান্স ও বেলজিয়াম। ভাইরাসটির বিস্তারের লাগাম টানতে দ্বিতীয় দফায় দেশজুড়ে লকডাউন জারি করা হয়েছে দেশগুলোতে।

গত বুধবার জার্মান চান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল জানিয়ে দেন আগামী ২ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত লকডাউন জারি থাকবে জার্মানি জুড়ে। বন্ধ থাকবে সমস্ত পানশালা ও রেস্তোরাঁ। বন্ধ থাকবে সিনেমা হল, থিয়েটার, কনসার্ট, খেলার মাঠ, বানিজ্য প্রদর্শনীতে। শর্তসাপেক্ষ ভাবে কয়েকটি দোকান খোলা থাকতে পারে।

প্রতিদিন প্রায় ৩৬ হাজার করে সংক্রমণ হচ্ছে ফ্রান্সে, নতুন করে। পরিস্থিতি বুঝে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রন কার্ফু জারি করেন। জাতির উদ্দেশ্যে প্রদত্ত টিভি ভাষণে তিনি বলেন, আমাদের অন্যান্য প্রতিবেশীর মতো আমাদের ঘরেও নতুন করে ভাইরাসের ঢেউ আছড়ে পড়ছে। তাই আমরা চাইছি আবার নতুন করে লকডাউন জারি করতে।

শুক্রবার থেকেই লকডাউন চালু হচ্ছে ফ্রান্সে। বলা হচ্ছে ঘরের বাইরে বেরোতেও পুলিশি অনুমতির প্রয়োজন হবে। অত্যাবশ্যকীয় পণ্য কেনার ব্যাপারে ছাড়পত্র পাওয়া যাবে। ওয়ার্ক ফ্রম হোমেই জোর দেয়া হবে।

বেলজিয়ামে নতুন লকডাউন জারি করায় সোমবার থেকে আগামী ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত দেশটিতে অপ্রয়োজনীয় দোকানপাট ও ব্যক্তিগত সেবাখাত যেমন- স্যালুন বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যেকোনও ধরনের জমায়েতে সর্বোচ্চ চারজন একত্রিত হওয়ার অনুমতি পাবেন।

বিবিসি বলছে, লকডাউন চলাকালীন সুপারমার্কেটেগুলোতে শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় পণ্য-সামগ্রী বিক্রি করা যাবে। এই সময়ে একটি পরিবার থেকে পণ্য কেনার জন্য শুধুমাত্র একজন সুপারমার্কেটে যেতে পারবেন।

করোনাভাইরাসের পুনরুত্থানে ইউরোপের এই দেশটিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এছাড়া আগে থেকে কার্যকর রাত্রিকালীন কারফিউ এবং বার, রেস্টুরেন্ট বন্ধের সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে।

স্বাআলো/এসএ