চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিয়েই ১২ বছরের কাজের হিসাব চাইলেন নীরা

যশোর: যশোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণ করেই  নুরজাহান ইসলাম নীরা সংশ্লিষ্টদের পাঁচ দফা নির্দেশনা দিয়েছেন। এক সপ্তাহের মধ্যে তিনি গত ১২ বছরের সব উন্নয়ন প্রকল্পের বিবরণ চেয়েছেন। এছাড়া তিনি উপজেলার সব কমিউনিটি ক্লিনিকে প্রতিমাসের ‍ওষুধসহ প্রদত্ত সেবার  সব  রিপোর্ট পেশ করতে নির্দেশ দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার উপজেলার চেয়ারম্যান হিসেবে প্রথম কর্মদিবসে তিনি এসব নির্দেশনা দেন। এর আগে বুধবার তিনি যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেই তিনি যশোরকে স্মার্ট উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে সকলের সহযোগিতা চান। পরে পাঁচ দফা নির্দেশনা দেন।

নির্দেশনায় তিনি উপজেলা পরিষদের নেতৃত্বে বর্তমানে যশোর সদর উপজেলায় কী কী কাজ চলমান আছে এবং কোন কাজ বর্তমানে কী অবস্থায় আছে তা আগামী ২৬ নভেম্বরের মধ্যে রিপোর্ট পেশ করতে বলেছেন। উপজেলা পরিষদের কাজের সাথে কোন কোন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জড়িত আছে, তার তালিকা ২৬ নভেম্বরের মধ্যে জমা দিতে বলেছেন। এছাড়া, যশোর সদর উপজেলা পরিষদের বিগত ১২ বছরের উন্নয়ন প্রকল্পসহ সব কাজের বিস্তারিত বিবরণ চেয়েছেন তিনি।

আর যশোর সদর উপজেলার গ্রামের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে তিনি কমিউনিটি ক্লিনিকে আরো কার্যকর করতে নির্দেশনা দিয়েছেন। বলেছেন, ‘১৫টি ইউনিয়নের প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে হবে। আমি প্রতিমাসে ঔষধ এবং সেবার প্রাপ্ত ও প্রদত্ত হিসাবের যাবতীয় রিপোর্ট দেখতে চাই।’

দুর্নীিতিমুক্ত কাজ নিশ্চিত করতে উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলীকে নিয়ে চেয়ারম্যান প্রদত্ত প্রতিনিধিসহ একটি পর্যবেক্ষক টিম গঠনের উদ্যোগ নিয়েছেন নতুন চেয়ারম্যান। সেই কমিটি উপজেলা পরিষদের যাবতীয় ঠিকাদারি কাজের তদন্ত এবং রিপোর্ট পেশ করবে।

স্বাআলো//ডিএম