পুলিশকে সহায়তা করায় রমেক হাসপাতালের পরিচালক অবরুদ্ধ

রংপুুুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত ৪র্থ শ্রেণির চার কর্মচারীকে গ্রেফতারে পুলিশকে সহায়তার অভিযোগ তুলে ভারপ্রাপ্ত পরিচালককে অবরুদ্ধ করেছে বরখাস্তকৃত নেতাসহ তার দালালেরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. রোস্তম আলীকে প্রায় একঘণ্টা তার কক্ষে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরে তিনি অফিস থেকে বেরিয়ে হাসপাতালের কোয়ার্টারে গেলেও নিজ বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ে যেতে পারছেন না। তার গাড়ি এবং চালককে আটকে রেখেছে কর্মচারীরা।

সূত্র জানায়, হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারী আলামিন, মোকছেদুল ইসলাম, বাদল মিয়া ও আশরাফুল ইসলাম সনদ দেয়ার কথা বলে বুধবার দুপুরে ছয় হাজার টাকা দাবি করেন এক রোগীর কাছে। এ ঘটনায় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ ওই চারজনকে দালাল হিসেবে চিহ্নিত করে আটকের পর পরিচালকের কার্যালয়ে নিয়ে যায়। এসময় পরিচালক অপরাধী হলে তাদেরকে গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়ার জন্য পুলিশকে বলেন। পুলিশ ওই চারজনকে নিয়ে যেতে ধরলে কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক (হাসপাতাল থেকে বরখাস্তকৃত) আশিকুর রহমান নয়নের নেতৃত্বে তাদেরকে বাধা দেয়া হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ তাদেরকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়। কর্মচারীদের পক্ষে কথা না বলায় এবং পুলিশকে সহায়তা করায় আজ বৃহস্পতিবার কর্মচারীরা পরিচালককে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখেন। এক পর্যায়ে পরিচালক অফিস থেকে বেরিয়ে হাসপাতালের কোয়ার্টারে গেলেও নিজ বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ে যেতে পারছেন না। কারণ, তার গাড়ি এবং চালককে আটকে রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. রোস্তম আলী বলেন, আজ বৃহস্পতিবার কাজ শেষে গ্রামের বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ে যেতে চেয়েছিলাম। কিন্তু কর্মচারীরা আমার গাড়ি ও চালককে আটকে রেখেছে। অফিস থেকে বেরিয়ে এখন হাসপাতালের কোয়ার্টারে অবস্থান করছি।

স্বাআলো/এসএ