স্বরূপে ফিরছে আওয়ামী যুবলীগ

শহীদ শেখ ফজলুল হক মনির হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল শুরু থেকেই। দেশের যুবসমাজকে একত্রিত করে জাতীয় গূরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিল সংগঠনটি। কিন্তু যুবলীগের দীর্ঘ পথচলায় বিগত কমটির নেতাকর্মীরা কমিটি বাণিজ্য এবং ক্যাসিনোকাণ্ডে জড়িয়ে যুবলীগকে সমালোচিত করেন। সেই অবস্থায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে শুদ্ধি অভিযানে যুবলীগের নেতা ইসমাইল হোসেন সম্রাটসহ বেশ কয়েকজন নেতা গ্রেফতার হয়।

এরপর যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীকে অব্যহতি দিয়ে চয়ন ইসলামের নেতৃত্বে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটির পরিচালনায় যুবলীগের কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হয়। এতে শেখ ফজলুল হক মনির পুত্র ফজলে শামস পরশকে চেয়ারম্যান ও মাইনুল হোসেন খান নিখিলকে সাধারণ সম্পাদক করে যুবলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপর দীর্ঘ প্রায় এক বছর ধরে যাচাই বাছাই করে যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হয়। সেই কমিটি এখন যুবলীগের স্মমহিমায় উদ্ভাসিত হচ্ছে। এই কমিটি এখন দেশের যুবসমাজকে একত্রিত করে গণজোয়ার সৃষ্টি করেছে।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক এবং সর্বশেষ কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙচুরের পর থেকেই রাস্তায় নেমেছে আওয়ামী যুবলীগ। যুবলীগের নেতাকর্মীরা মৌলবাদী শক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যের ডাক দিয়েছে। যুবলীগের এই ডাকে মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে সারাদেশ। কুষ্টিয়ার ওই ঘটনার পরেই যুবলীগ ঢাকা শহরে তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ করে এবং সেখানে জনতার ঢল নামে। সেখান থেকে সারাদেশে বিক্ষোভের ডাক দেয়। সেই বিক্ষোভে জনতার ঢল নামে।

এখন পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে যুবলীগ সর্বোচ্চ ভূমিকা রাখছে। বিশেষ করে গত কয়েকদিন ধরে যুবলীগ সারাদেশে তাদের সাংগঠিনক সক্ষমতা প্রমাণ করেছে। তরুণরা যে হাল ধরতে পারে সেটা যুবলীগের নবগঠিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি প্রমাণ করলো। বিশেষ করে নবনির্বাচিত কমিটির প্রেসিডয়াম সদস্য ফরিদপুর ৪ আসনের এমপি মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, শেখ ফজলে ফাহিম, সাইফুর রহমান সোহাগসহ তরুণ নেতারা যেভাবে মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে স্বোচ্চার হয়েছে তা সারাদেশে যুবলীগ নেতাকর্মীদের উজ্জিবিত করেছে বলে মনে করছেন যুবলীগের একজন সাবেক নেতা।

তিনি বলেন, নবগঠিত কমিটির হাত ধরেই যুবলীগ পূর্বের অবস্থায় ফিরতে শুরু করেছে।

একটা সময় যুবলীগ নিয়ে সমোলোচনা হলেও রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন শেখ মনির পরবর্তীর প্রজন্মের হাতে যুবলীগের নেতৃত্ব যাওয়ার কারণে যুবলীগ তার স্বমহিমায় ফিরতে শুরু করেছে। বিশেষ করে চলমান ভাস্কর্য ইস্যুতে যুবলীগ যে ভূমিকা রেখেছে তা থেকে প্রমাণ হয় যে যুবলীগ তার স্বরূপে ফিরতে শুরু করেছে।

আওয়ামী লীগের একজন শীর্ষ নেতা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের ছায়াতলে থেকে শেখ ফজলুল হক মনি যেমন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ এবং লালন করতেন। বঙ্গবন্ধুর সহযোগী হিসেবে সবসময় পাশে পাশে থাকতেন ঠিক তেমনি মনির সন্তান শেখ ফজলে শামস পরশও যুবলীগের হাল ধরে শেখ হাসিনার পাশে থেকে যুবসমাজকে একত্রিত করবেন।

স্বাআলো/এসএ