বীরগঞ্জ পৌর নির্বাচন: ৫৯ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌর নির্বাচনে ৫৯ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর মধ্যে মেয়র পদে ৫জন, কাউন্সিলর পদে ৪১জন ও সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১৩জন রয়েছেন।

মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নূর ইসলাম নূর, বিএনপির প্রার্থী মোকারম হোসেন পলাশ, ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী শাহ-আলম, স্বতন্ত্র প্রার্থী হানিফ মাওলানা ও বর্তমান মেয়র মোশারফ হোসেন বাবুল প্রচারে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। তারা কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। করছেন উঠোন বৈঠক ও ছোট ছোট পথসভা। বিতরণ করছেন হ্যান্ডবিল।

পৌর নির্বাচনে সাড়ে ৫ লাখের বেশি খরচ করতে পারবেন না মেয়রপ্রার্থী

নূর ইসলাম নূর উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা জাতীয়তাবাদী যুবদলের পৌর কমিটির সদস্য সচিব মোকারম হোসেন পলাশ, বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলন উপজেলা পৌর শাখার সাধারণ সম্পাদক শাহ-আলম, সাবেক মেয়র হানিফ মাওলানা, মোশারফ হোসেন বাবুল পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান মেয়র।

১৬ জানুয়ারি এখানে ভোট গ্রহণ হবে। মেয়র প্রার্থীদের পাশাপাশি প্রচার চালাচ্ছে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীরা। চলছে মাইকিং। পৌর এলাকায় ছেয়ে গেছে প্রার্থীদের পোস্টারে।

বর্তমান পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে ১৫হাজার ৪৯৯ জন ভোটার রয়েছেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৭ হাজার ৪৯৫ জন এবং মহিলা ভোটার ৮ হাজার ৪জন।

নূর ইসলাম নূর বলেন, আমি নির্বাচিত হলে সব শ্রেণি ও পেশার নাগরিকদের সেবার মান নিশ্চত করা হবে। সেই সাথে পৌরসভাকে কিভাবে একটি মডেল পৌরসভা করা যায় সেই লক্ষ্যে কাজ করা হবে। আমি নির্বাচিত হলে পৌরবাসীর কোনো কষ্ট থাকবে না। সকল ধরনের সুযোগ-সুবিধা পৌছে যাবে পৌরবাসীর কাছে।

মোশারফ হোসেন বাবুল বলেন, ৫ বছর ধরে মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছি। পৌরবাসী বলতে পারবে কতটা উন্নয়ন হয়েছে। আমার একটাই লক্ষ্য ছিলো বীরগঞ্জ পৌরবাসী যাতে সব ধরনের সুবিধা পায়। সেই লক্ষ্য আমার পূরণ হয়েছে।

অন্য প্রার্থীরাও পৌরবাসীর উন্নয়নমূলক কাজ করার জন্য প্রতিশ্রুতি দেন।

স্বাআলো/এসএ