উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম

রংপুরের কাউনিয়ার উপজেলার হারাগাছে ভাতিজিকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় রংপুরের দৈনিক পত্রিকা আমাদের প্রতিদিন ও যায়যায়দিন পত্রিকার কাউনিয়া উপজেলা প্রতিনিধি মিজানুর রহমান মিটুলকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে বখাটেরা।

ওই সাংবাদিককে মারপিট করে ক্ষ্যান্ত হয়নি বখাটেরা দলবদ্ধ হয়ে বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে। এদিকে হারাগাছে সাংবাদিকের উপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানিয়েছে রংপুর ও কাউনিয়া উপজেলায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সাংবাদিক মিজানুর রহমান মিটুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী ভাতিজিকে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় ও মোবাইল মেসেজে প্রায় উত্ত্যক্ত করতো মধ্যপাড়া মালিয়াটারী গ্রামের বখাটে পারভেজ হাসান।

বিষয়টি তার পরিবারকে জানালে এতে ক্ষিপ্ত হয় বখাটে পারভেজ হাসানসহ তার বখাটে ৩-৪ বন্ধু।

স্থানীয়দের হামলায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ শিক্ষার্থী আহত

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে ভাতিজা কাঁকন রাস্তায় পারভেজ হাসানের দেখা পেয়ে বোনকে উত্ত্যক্ত না করাসহ তাদের বাড়িতে বিবাহের অনুষ্ঠান চলছে কোনো বিশৃঙ্খলা না করার জন্য নিষেধ করায় তাকে মারপিট করে ওই বখাটে। এ সময় সাংবাদিক মিজানুর ঘটনাস্থলে এগিয়ে গিয়ে প্রতিবাদ করলে তাকেও শারীরিক লাঞ্চিত করে বখাটে পারভেজ ও তার বখাটে ৩-৪ জন বন্ধু। পরে ২০-২৫জন উশৃঙ্খল যুবকরা গভীররাত পর্যন্ত দেশীও অস্ত্র নিয়ে রাস্তায় মহড়া দেয় সাংবাদিকের ওপর হামলা করা জন্য।

আজ শুক্রবার মসজিদে জুম্মা নামাজ শেষে সাংবাদিক মিজানুর ও তার ছেলে মাহাবুব বাড়ি ফেরার পথে মসজিদ মোড়ে বখাটে পারভেজ হাসান, রিফাত, সোহেল, রিয়াদ, বিজয়, মুকুল, আনোয়ারুল, সুমন, নাজিরসহ অজ্ঞাত ১৪-১৫ জন যুবক দেশীয় অস্ত্র দিয়ে সাংবাদিক মিজানুরের শরীরে আঘাত করে এ সময় হাত দিয়ে ধারালো অস্ত্র আটক করতে চেষ্টা করলে তার হাত কেটে যায়। চিৎকারে সাংবাদিকের স্ত্রী এগিয়ে গেলে তাকেও শারীরিক লাঞ্চিত করে বখাটেরা। পরে উশৃঙ্খল যুবকরা সাংবাদিকের বাড়িতে হামলা করে দরজা ভাংচুর করে।

এ ব্যাপারে রংপুর মেট্টোপলিটন হারাগাছ থানার ওসি রেজাউল করিম বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

স্বাআলো/এসএ