কেশবপুরে রবিবার ৫৪ প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ

আগামীকাল কেশবপুর পৌরসভায় চতুর্থবারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী পাঁচ বছরের জন্য কারা হচ্ছেন কেশবপুর পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলর তা নির্ধারণ হবে রবিবার।

প্রথমবারের মতো কেশবপুর পৌরসভায় ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ফলে প্রতিদ্বন্দ্বী মেয়র, কাউন্সিলর প্রার্থীরা কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। যা শেষ হয়েছে শুক্রবার।

শনিবার সকালে শহরের কেশবপুর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় নির্বাচন ডিউটিতে নিয়োজিত সব অফিসার ও ফোর্সের ব্রিফিং প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এবার নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র রফিকুল ইসলাম, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাবেক মেয়র আব্দুস সামাদ বিশ্বাস এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী আব্দুল কাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে প্রচার প্রচারণায় প্রথম থেকেই আওয়ামী লীগ প্রার্থী এগিয়ে রয়েছেন।

আরো পড়ুন>>> কেশবপুর পৌর নির্বাচনে সব প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ

এছাড়া এই ভোটে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৮ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। যাদের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন ভোটাররা।

এদিকে, নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে শনিবার সকালে কেশবপুর পাইলট বালিকা বিদ্যালয় মাঠে নির্বাচন ডিউটিতে নিয়োজিত সকল অফিসার ও ফোর্সের ব্রিফিং প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনকালীন ও নির্বাচনের আগে-পরে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এই প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মোহাম্মদ সালাউদ্দিন শিকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ সার্কেল) জামাল আল নাসের, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) অপু সরোয়ার, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (নাভারণ সার্কেল) জুয়েল ইমরান, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মণিরামপুর সার্কেল) সোয়েব আহমেদ খান, কেশবপুর থানার ওসি জসীম উদ্দীন প্রমুখ।

স্বাআলো/আরবিএ