রংপুরে পৃথক ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার

রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলায় পৃথক ঘটনায় মাহবুবা আক্তার মেরি ও রুপা মনি নামের দুই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার রাতে বদরগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের বুজরুক হাজিপুর গাছুয়াপাড়া গ্রামের নিজ ঘর থেকে মাহবুবা আক্তার মেরির গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়।

অন্যদিকে শনিবার সকালে একই উপজেলার কুতুবপুর নাটারাম উত্তরপাড়া গ্রামের একটি ভুট্টা ক্ষেত থেকে রুপা মনির লাশ উদ্ধার হয়। নিহত রুপা ওই গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে ও নাটারাম উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিল। তবে পুলিশ বলছে, দুটি মৃত্যুই রহস্যজনক।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার বিকেলে নিজ ঘরে মেরিকে গলাকাটা অবস্থায় দেখে মেরির মা নুরনাহার চিৎকার দেয়। তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তার গলা কাটা দেখতে পায়। তাদের সামনেই অল্প সময়ের মধ্যেই নিস্তেজ হয়ে পড়ে মেরী। মেরি ওয়ারেসিয়া দাখিল মাদরাসার নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিল। এদিকে এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা তদন্ত করছে পুলিশ।

আরো পড়ুন>>> নিখোঁজের দুইদিন পর আবর্জনার স্তূপে মিললো গৃহবধূর লাশ

অন্যদিকে আজ শনিবার সকালে একই উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের নাটারাম উত্তরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

এক মাস আগে রুপা নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার এক ছেলের সঙ্গে পালিয়ে বিয়ে করে। এ নিয়ে থানায় মামলা করেন রুপার বাবা রফিকুল ইসলাম। পরে বিয়ে মেনে নেয়ার কথা বলে কৌশলে রুপা ও তার স্বামীকে বাড়িতে ডেকে আনে রুপার পরিবার। এক পর্যায়ে ছেলেটিকে পিটিয়ে তালাক নামায় স্বাক্ষর করতে বাধ্য করে। পরে তাকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। এ নিয়ে রুপার সঙ্গে তার বাবার সম্পর্ক খারাপ যাচ্ছিল। স্থানীয়দের ধারণা, এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রুপাকে হত্যা করে লাশ ভুট্টা ক্ষেতে ফেলে রাখা হয়।

লাশ দুটি উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বদরগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুর রহমান। তিনি বলেন, বুজরুক হাজিপুর গাছুয়াপাড়া গ্রামের নিজ ঘর থেকে মাহবুবা আক্তার মেরি’র গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। বিষয়টি রহস্যজনক। ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সিফাত ই রাব্বান ও পিবিআইসহ ক্রাইম সিনের সদস্যরা।

অন্যদিকে নাটারাম উত্তরপাড়া গ্রামের একটি ভুট্টা ক্ষেত থেকে রুপা মনি’র লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এঘটনায় নিহতের স্বজনদের জিজ্ঞাসাবাদ করে রহস্য উদঘাটনেরর চেষ্টা চলছে।

ওসি আরো জানান, নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

স্বাআলো/আরবিএ