পিকআপের চাপায় ঝরলো মা-মেয়ের প্রাণ

লক্ষ্মীপুরে সড়কের পাশের সবজি গাছে পানি দেয়ার সময় পিকআপ চাপা পড়ে মা-মেয়েসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আজ রবিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে সদর উপজেলার চরচামিতা গ্রামের লক্ষ্মীপুর-ঢাকা আঞ্চলিক মহাসড়কের সর্দার বাড়ির সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে থানার এসআই কাউছার আহমেদ দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতারা হলেন- সর্দার বাড়ির মৃত বাবুল হোসেনের স্ত্রী রাহেলা বেগম (৫০), তার মেয়ে জান্নাত (১১), পার্শ্ববর্তী নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আলেয়াপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে মাছুম। কিছুদিন আগে চরচামিতা গ্রামে মাছুম নানার বাড়িতে বেড়াতে আসে।

ছুটির দিনে সড়কে ঝরলো ১৯ প্রাণ

হাইওয়ে পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিকেলে সড়কের পাশে খাল পাড়ে রোপণ করা সবজি গাছে রাহেলা পানি দিচ্ছিলেন। এ সময় তার সঙ্গে মেয়ে জান্নাত এবং মাছুম ছিলো। পিকআপটি (নোয়াখালী শ ১১-০১৭১) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে গিয়ে তাদের ওপর পড়ে। এতে তারা গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পথে রাহেলা বেগম মারা যান। হাসপাতালে পৌঁছলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আহত দুই শিশুকেও মৃত ঘোষণা করেন।

চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে থানার এসআই কাউছার আহমেদ বলেন, পিকআপ উল্টে পড়ে দুই শিশুসহ তিনজন মারা গেছেন। ঘটনার পরপরই চালক পালিয়ে যাওয়ায় আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।

স্বাআলো/এস