বাগেরহাটে আ.লীগ অফিসে হামলা-ভাংচুর, আহত ৬, গ্রেফতার ৪

বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার ভাগা নামক এলাকায় আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপের বিরোধের ধারাবাহিকতায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ অফিস ভাংচুর করা হয়েছে।

এ সময় এক পক্ষের ৬ জন আহত হয়েছেন।

এদের মধ্যে রেদোয়ানুল আলম ও রুহুল আমীন নামের দুইজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ঘটনার পর রাতেই আওয়ামী দলীয় ইউপি চেয়ারম্যান জামিল হোসেন জামুসহ ৭০ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরো ৭০/৮০ জনকে আসামি করে রামপাল থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। পুলিশ ওই রাতেই ৪ জন এজাহারনামীয় আসামিকে গ্রেফতার করেছে।

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বরখাস্ত

আহতরা ও এলাকাবাসী জানায়, আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ বিরোধে রামপাল সদর ইউপি চেয়ারম্যান জামিল হোসেন জামু গ্রুপ ও আওয়ামী লীগ নেতা বেলাল ব্যাপারী গ্রুপের মধ্যে দ্বন্ধ চলে আসছে। এ দ্বন্দের জের ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর চেয়ারম্যান জামিল হোসেন জামু গ্রুপ ভাগা এলাকার আওয়ামী লীগের আঞ্চলিক কার্যালয়ে হামলা করে। হামলায় আওয়ামী লীগের অফিস ভাংচুর ও মারপিটে বেলাল গ্রুপের ৬ জন আহত হোন।

রামপাল থানার ওসি মোহাম্মদ সামছুদ্দীন বুধবার বিকেলে জানান, এ ঘটনায় বেলাল হোসেন ব্যাপারী বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন। এজাহারনামীয় ৪ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ওই এলাকায় পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে বলে জানান ওসি মোহাম্মদ সামছুদ্দীন।

হামলার বিষয়ে রামপাল সদর ইউপি চেয়ারম্যান জামিল হাসান জামু তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি ঘটনাস্থলে ছিলাম না। আর জানা মতে এ ঘটনা পরিকল্পিত। কারণ বেলাল ব্যাপারী ও তার ভাই সন্ত্রাসী। উপজেলার ভাগা, কাদিরখোলাসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে বেলাল ব্যাপারী গং।

স্বাআলো/এসএ

.