রংপুরে ছাত্রদলের কোন্দল চরমে, দুই উপজেলায় পাল্টাপাল্টি কমিটি ঘোষণা

রংপুর জেলা ছাত্রদলের পূর্নাঙ্গ কমিটি ,পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণার পর দলের আভন্তরীণ কোন্দল চরম আকার ধারণ করেছে। কমিটি বাতিলের দাবিতে একটি পক্ষ বিক্ষোভ, সংবাদ সম্মেলন, গণপদত্যাগসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। রবিবার রাতে এ দুটি উপজেলায় পাল্টা কমিটি ঘোষণা করা হয়। এনিয়ে দলের তৃণমূল পর্যায়ে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ১ এপ্রিল  রংপুর জেলার পূর্নাঙ্গ কমিটির সাথে পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া উপজেলা কমিটি ঘোষণা করে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি।

দলটির রংপুর বিভাগীয় টিমের প্রধান আশরাফুল ইসলাম ফকির লিংকনসহ বিভাগীয় কমিটির সুপারিশে কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল এই কমিটির অনুমোদন দেন।

ঘোষিত ওই কমিটিতে পীরগাছা উপজেলায় লোকমান হোসেনকে আহবায়ক ও মোফাচ্ছিরুল ইসলাম মিলনকে সদস্য সচিব এবং গঙ্গচড়ায় আখতারুজ্জামান তিতাসকে আহবায়ক ও আব্দুল কাফিকে সদস্য সচিব করা হয়। দুই কমিটিতে ১৮জন যুগ্ম আহবায়কসহ ২০ জন নেতাকর্মীকে সদস্য রাখা হয়।

কমিটি ঘোষণার পর থেকেই ত্যাগীদের অবমূল্যায়ন, কমিটি গঠনে অনিয়মসহ বিভিন্ন অভিযোগ তুলে একটি পক্ষ ওই কমিটি প্রত্যাখান করেন। বিক্ষোভ, সংবাদ সম্মেলন, গণপদত্যাগসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে। তারা তদন্ত পূর্বক কমিটি বাতিলসহ বিভিন্ন দাবি জানান।

দাবি আদায়ের লক্ষে গত শুক্রবার বিকেলে নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড়স্থ দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন করেন। সেখানে দলের রংপুর জেলা সভাপতি রংপুর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মনিরুজ্জামান হিজবুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল ইমরান সুজন ও মুনতাসির মামুন মুন্না, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত জীবনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ওইদিন পীরগাছা ও গঙ্গচড়া উপজেলার সদস্য সচিবসহ  ২১ নেতাকর্মী পদত্যাগ করেন। সেখান থেকে ৪৮ ঘন্টা সময় বেঁধে দেন তারা। অন্যথায় গণপদত্যাগসহ বিভিন্ন কর্মসূচীর ঘোষণা দেন তারা।

এদিকে কেন্দ্র থেকে কোন প্রকার সাড়া না পেয়ে গত রবিবার রাতে কেন্দ্র ঘোষিত কমিটি প্রত্যাখান করে পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া উপজেলায় নতুন কমিটি ঘোষণা করেন জেলা কমিটির একটি পক্ষ। সেই পক্ষের নেতা জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুনতাসির মামুন মুন্না স্বাক্ষরিত একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি গণমাধ্যমে পাঠানো হয়। সেখানে বলা হয়, রংপুর জেলা ছাত্রদলের আওতাধীন পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া উপজেলা কমিটি ঘোষণায় অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগে কেন্দ্রীয় কমিটিকে ৪৮ ঘন্টা সময় বেঁধে দেয়ার পরও কোন সুরাহা না হওয়াতে তারা হতাশ। সেই কারণে তারা জেলা কমিটির সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া উপজেলা কমিটি ঘোষণা করেন।

আরো পড়ুন>>> রংপুরে পরকীয়ায় বলি হলো এক সন্তানের জননী

তাদের ঘোষিত কমিটিতে কেন্দ্র ঘোষিত পীরগাছা উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব মোফাচ্ছিরুল ইসলাম মিলনকে আহবায়ক, একই কমিটির যুগ্ম আহবায়ক জিসানুর রহমান জনিকে সদস্য সচিব করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট পাল্টা কমিটি ঘোষণা করা হয়। অন্যদিকে কেন্দ্র ঘোষিত গঙ্গাচড়া উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব আব্দুল কাফিকে আহবায়ক, একই কমিটির যুগ্ম আহবায়ক আশিকুর রহমান আশিককে সদস্য সচিব করা হয়। দুই কমিটিতে ১৮ জন যুগ্ম আহবায়ক, ২০ জনকে সদস্য করা হয়।

রংপুর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মনিরুজ্জামান হিজবুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল ইমরান সুজন ও মুনতাসির মামুন মুন্না, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত জীবন স্বাক্ষরিত এই কমিটি ঘোষণা করা হয়।

পীরগাছা উপজেলা ছাত্রদলের একাংশের আহবায়ক ও কেন্দ্র ঘোষিত কমিটির সদস্য সচিব মোফাচ্ছিরুল ইসলাম মিলন বলেন, রংপুর বিভাগীয় টিমের উপস্থিতি আমাকে আহবায়ক করা হয়েছিল। এতে জেলা কমিটির সকল নেতৃবৃন্দ সুপারিশ করেছেন। কিন্তুু কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে হঠাৎ করে কমিটি ঘোষণা করা হয়। সেখানে আমাকে আহবায়কের বদলে সদস্য সচিব করা হয়। এটা মানি মেনে নেইনি। তাই সদস্য সচিব পদ থেকে পদত্যাগ করেছি। গতকাল জেলা কমিটির সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতৃবৃন্দ আমাকে আহবায়ক করে যে কমিটি দিয়েছেন সেটাই সঠিক কমিটি। বৈধ কমিটি।

কেন্দ্র ঘোষিত কমিটির গঙ্গাচড়া ছাত্রদলের সদস্য সচিব আব্দুল কাফি বলেন, আমার সঠিক মূল্যায়ন করা হয়নি। তাই আমি পদত্যাগ করেছি। জেলা কমিটি ও গঙ্গাচড়ার নেতাকর্মীরা ঠিক করবেন কাদের নেতৃত্বে ছাত্রদল চলবে। সকলেই আমার পক্ষে রয়েছে।

রংপুর জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল ইমরান সুজন বলেন, পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া উপজেলা কমিটি ঘোষণায় অনিয়ম, দুর্নীতির আশ্রয় নেয়া হয়েছে। প্রকৃত ত্যাগী ও দলের নিবেদিতদের সঠিক মূল্যায়ন করা হয়নি। তাই আমরা জেলা কমিটির সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতৃবৃন্দ আলোচনার ভিত্তিতে কেন্দ্রীয় কমিটিকে ৪৮ ঘন্টা সময় দিয়েছিলাম। কিন্তুু কেন্দ্র আমাদের কথায় কোন কর্ণপাত করেননি। সেই কারণে তারা জেলা কমিটির সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া উপজেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।

সার্বিক বিষয়ে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদ্য পদত্যাগী রংপুর বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও রংপুর জেলা কমিটির সভাপতি মনিরুজ্জামান হিজবুলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, জেলার আওতাধীন পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া উপজেলা কমিটি গঠনে ব্যাপক অনিময় করা হয়েছে। জেলা কমিটির কোন মতামত নেয় হয়নি। সেই কারণে প্রতিবাদ স্বরুপ কেন্দ্রীয় কমিটির রংপুর বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক পদ থেকে আমি পদত্যাগ করেছি।

স্বাআলো/আরবিএ