একদিনে সর্বোচ্চ করোনা সংক্রমণের রেকর্ড ভারতে, মৃত্যু ৮৩৯

ভারতে গত কয়েকদিন ধরেই একের পর এক করোনা সংক্রমণের রেকর্ড হচ্ছে। এবার দেশটিতে একদিনেই দেড় লাখের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এই পরিস্থিতি যথেষ্ঠ উদ্বেগ এবং আশঙ্কার।

রবিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৫২ হাজার ৮৭৯। অপরদিকে একদিনেই মারা গেছে ৮৩৯ জন।

এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুতে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এই তালিকায় ভারতের অবস্থান তৃতীয়। ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৩৩ লাখ ৫৮ হাজার ৮০৫।

দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬৯ হাজার ৩০৫ জনের। তবে ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে ১ কোটি ২০ লাখ ৮১ হাজার ৪৪৩ জন। দেশটিতে বর্তমানে অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা ১১ লাখ ৮ হাজার ৫৭। এছাড়া আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে ৮ হাজার ৯৪৪ জন।

ভারতে করোনা সংক্রমণে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র, ছত্তিশগড়, কর্নাটক, উত্তরপ্রদেশ এবং কেরালা। দেশটির মোট সংক্রমণের ৭২ দশমিক ২৩ ভাগই এই পাঁচ রাজ্যের।

গত কয়েকদিন ধরেই দেশটিতে একের পর এক সংক্রমণের রেকর্ড হয়েছে। টানা পাঁচদিন ধরেই সংক্রমণ এক লাখের বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। একদিন আগেই সংক্রমণ ছিল ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮৪। একদিনের ব্যবধানেই সংক্রমণ বেড়েছে ৫ শতাংশ।

সংক্রমণ বাড়তে থাকায় অনেক রাজ্যেই রাত্রীকালীন কারফিউ জারি করেছে কর্তৃপক্ষ। পুরো দেশের মধ্যে ৫১ দশমিক ২৩ শতাংশ সংক্রমণই মহারাষ্ট্রে। ওই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরে ইঙ্গিত দিয়েছেন যে, সেখানে হয়তো লকডাউন জারি করা হতে পারে।

এদিকে, শনিবার নতুন বিধি-নিষেধ জারি করেছে দিল্লি সরকার। সেখানে জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞা আনা হয়েছে। এছাড়া রেস্টুরেন্ট, থিয়েটার, গণপরিবহন, বিয়ে এবং শেষকৃত্যের মতো অনুষ্ঠানে লোকজনের অংশগ্রহণে সীমাবদ্ধতা আনা হয়েছে।

স্বাআলো/এসএ