প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা প্রধান শিক্ষক আটক

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা করায় যশোর সদর উপজেলার বিআরবি স্কুলের প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলামকে আটক করেছে ফরিদপুর ডিবি পুলিশ।

বর্তমানে শহিদুল ফরিদপুর জেল হাজতে রয়েছেন। তিনি যশোর সদর উপজেলার ভায়না-রাজাপুর গ্রামের বাসিন্দা।

সূত্র জানায়, চলতি মাসের ৪ এপ্রিল ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় চাকরি দেয়ার নাম করে টাকা আনতে যান শহিদুল। এসময় ওই এলাকার সাধারণ মানুষ তাকে নানান প্রশ্ন শুরু করেন। এক পর্যায়ে তার উত্তর আটকে যায়। এরপরই স্থানীয়রা তাকে প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করেন।

ওইদিন বাঘারপাড়া উপজেলার বুধপুর গ্রামের হাসেম আলীর মোটরসাইকেল ভাড়ায় ঠিক করে ভাঙ্গায় পৌঁছান শহিদুল মাস্টার।

হাসেম বলেন, স্থানীয়রা বলাবলি করছিলেন শহিদুল তিনজনের কাছ থেকে তিন লাখ, এক লাখ ও ছয় লাখ টাকা নিয়েছেন চাকরি দেয়ার নামে। ওই দিন এক ব্যক্তির চাকরি পাওয়ার জন্য তিন লাখ টাকা দেয়ার জন্য তাকে ভাঙ্গায় ডেকে নিয়ে যান। এসময় তার ব্যাগ চেক করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ভুয়া কাগজপত্র ও কিছু সিল পেয়ে স্থানীয়রা তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।

আরো পড়ুন>>> যশোরে তাড়ি ও গাঁজাসহ দুই মাদক বিক্রেতা আটক

এর আগে প্রধান শিক্ষক শহিদুলের বিরুদ্ধে স্কুলে বার বার উত্থাপিত অভিযোগ ম্যানেজে সমাধান করেছেন। এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের সুযোগ করে দেয়ার নামে প্রায় তিন লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীরা জেলা প্রশাসক ও যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু কিছুই হয়নি। ওই প্রতারণা ছেড়ে এখন নতুন প্রতারণার ফাঁদ পেতেছেন তিনি।

স্বাআলো/আরবিএ