বাগেরহাট শহরে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজি, দুইজন গ্রেফতার

বাগেরহাটে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজি করার সুনিদ্দিষ্ট অভিযোগে সোহরাব হোসেন (৪৮) ও মাসুদ রানা  ওরফে ভুট্টো (৩৯) নামের দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

আর বাবুল খান নামের অপর একজন পালিয়ে গেছে। এদের বিরুদ্ধে বাগেরহাট মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আটক দুজনকে সোমবার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করলে তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

রবিবার রাতে বাগেরহাট শহরের খারদ্বার মসজিদ এলাকা থেকে দুইজনকে আটক করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা।

আটক সোহরাব হোসেন বাগেরহাট শহরের খারদ্বার এলাকার এবং মাসুদ রানা ওরফে ভুট্টো একই এলাকার বাসিন্দ।ঘটনাটি বাগেরহাট পুলিশ প্রথমে গোপন করার চেষ্টা করলেও পরে তা জানাজানি হয়। আর এ ঘটনা নিয়ে গোট বাগেরহাট শহরে বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

রংপুরে গৃহবধুকে হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ, শ্বাশুড়ি আটক

থানা পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার  শরণখোলা  উপজেলা থেকে সোনিয়া খাতুন নামের এক মেয়েকে মোটরসাইকেল যোগে বাগেরহাট শহরে নিয়ে আসে মেয়েটির দুঃসম্পর্কের চাচা শরণখোলার উপজেলার ছৈলাবুনিয়া এলাকার দর্জি দোকানদার ইউসুফ আকন।

জেলা শহরের রেলরোডস্থ একটি আবাসিক হোটেলের সামনে দাড়ানো অবস্থায় সোহরাব হোসেন,  মাসুদ রানা (ভুট্টো) ও বাবুল খান নামের তিন ব্যক্তি ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তাদেরকে ইজিবাইকে তুলে  শহরতলীর দশানি এলাকায় নিয়ে যায়। সেখানে তাদেরকে আটকে রেখে কতিথ ডিবি পুলিশ বিকাশের মাধ্যমে ২১ হাজার টাকা গ্রহণ করেন। পরে আরও টাকা দাবি করে  ইউসুফ আকনের কাছে। ইউসুফ আকন তার ভাইয়ের কাছ থেকে নিজ বিকাশ এ্যাকাউন্টে আরো ১০ হাজার টাকা আনেন। কিন্তু ইউসুফ আকনের মুঠোফোন থেকে টাকা ক্যাশ করা সম্ভব নয় বলে জানান বিকাশ ব্যবসায়ীরা। এ সময় আসামিরা ইউসুফ আকনকে চরথাপ্পর মারে। ইউসুফের সাথে থাকা মেয়েটিকে ছেড়ে দেয়। সিম ফেলে দিয়ে ইউসুফের মুঠোফোন নিয়ে যায় তারা। ইউসুফকে ছেড়ে দেয়।

এ বিষয়ে বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর শাফিন মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, ডিবি  পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজীর অভিযোগ ৩ জনের নাম উল্লেখ করে ইউসুফ আকন নামের এক ব্যক্তি অভিযোগ করেন। তার অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা দুই জনকে আটক করেছি। নিয়মিত মামলা হয়েছে। আটকদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এজাহার নামীয় ৩নং আসামি বাবুল খানকে গ্রেফতার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

স্বাআলো/আরবিএ