নড়াইলে ব্যবসায়ীকে গুলির ঘটনায় আরো একজন গ্রেফতার, অস্ত্র-গুলি উদ্ধার

নড়াইলে এক ভাংড়ী ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে গুলি ও কুপিয়ে টাকা ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনার মামলার অন্যতম আসামি সাব্বির সরদার (২৬) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ সময় তার কাছ থেকে একটি ৭.৬৫ পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়।

বুধবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায়।

গ্রেফতারকৃত সাব্বির সরদার যশোরের কোতোয়ালি থানার রঘুরামপুর এলাকার বাসিন্দা। তাকে আশ্রয়দানকারী মামুন (৩৭) দক্ষিণ নড়াইল এলাকার বাসিন্দা। মামুন এখনো পলাতক রয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে তাকে দক্ষিণ নড়াইল এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় বলেন, গ্রেফতারকৃতের বিরুদ্ধে সদর থানায় অস্ত্র আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত ৬ এপ্রিল বিকালের দিকে নড়াইল পৌরসভার ধোপাখোলা এলাকায় দুই মোটরসাইকেলে ৬ অস্ত্রধারী যুবক মুজিবরের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চড়াও হয়ে তার নিকট এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। মুজিবর তাদের দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে অস্ত্রধারীরা তাকে আগ্নেয় অস্ত্র দিয়ে গুলি ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে আহত করে ক্যাশবাক্সে থাকা টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় আহত মুজিবর রহমান বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামি করে সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। এর মধ্যে চারজন পুলিশের হাতে ধরা পড়লো। এর আগে নাইমুল ইসলাম ওরফে দূর্জয় ওরফে ডিজে নাইম, তরিকুল ও কাজেম ওরফে কাদের মোল্যা নামে ৩ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা আদালতে নিজেদের দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন।

স্বাআলো/এসএ