বিএনপি এখন মৃতপ্রায়: নৌপ্রতিমন্ত্রী

নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আমরা এমন একটি সময় পার করেছি যখন একজন মানুষ করোনা আক্রান্ত হলে তাকে নিজের বাড়িতেও থাকতে দেয়া হয়নি। তাকে পারিবারিকভাবে লকডাউন করে রাখা হয়েছিলো। এমন একটি সংকটময় মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী ৬৪ জেলায় মানুষের সঙ্গে গণভবন থেকে যুক্ত হয়ে সাহস যুগিয়েছেন। সেই সময় ১০ কোটির অধিক মানুষকে আমরা সরকারিভাবে সহায়তা করেছি। ওই সময় পৃথিবীর অনেক দেশের অর্থনীতির চাকা ভেঙে পড়লেও বাংলাদেশের অর্থনীতি চাকা সচল ছিলো।

শনিবার আওয়ামী লীগের বোচাগঞ্জ উপজেলা শাখা আয়োজিত এক মতবিনিময় সভা ও কোভিড-১৯ সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, শুধু তাই নয় বাংলাদেশের অনেক হাসপাতালে আইসিইউ ছিলো না। অল্প সময়ের মধ্যেই আমাদের স্বাস্থ্য বিভাগ এক বছরের মধ্যে প্রত্যেকটি জেলায় আইসিইউর ব্যবস্থা করেছে। অক্সিজেন সরবরাহ করেছে। আমরা উপজেলা পর্যায়েও অক্সিজেনের ব্যবস্থা করেছি।

আওয়ামী লীগ খেটে খাওয়া ও মেহনতি মানুষের দল: তথ্যমন্ত্রী

তিনি বলেন, আপনারা দেখেছেন ভারতের করোনার ২য় ঢেউয়ের মধ্যে লাশ দাফনের বা দাহ করার জায়গা নেই। লাশগুলো ফ্রিজের মধ্যে রাখা হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতের সরকার বসে নেই। সরকার ভ্যকসিন নেয়ার জন্য বিশ্বের অনেক দেশের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের অনেক মানুষ মনে করেছিল প্রায় ২০ লাখ মানুষ করোনাভাইরাসের ২য় টিকা দিতে পারবে না। কিন্তু সরকার সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে শুধু ভারত নয় বিশ্বের অন্যদেশ থেকে ২য় ডোজ আমদানি করার চিন্তা করেছে।

তিনি বলেন, রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া এই বিএনপি এখন মৃতপ্রায়। এই বিএনপি-জামায়ত চক্র দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মতলব নিয়ে রাজনীতি করছে।

বোচাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু সৈয়দ হোসেনের সভাপতিত্বে সঞ্চালনা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফছার আলী। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সেতাবগঞ্জ পৌর মেয়র আবদুস সবুর, উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন শাহ প্রমুখ।

অনুষ্ঠান শেষে বেলা সাড়ে ১২টায় নৌপ্রতিমন্ত্রী বোচাগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণের সাথে মতবিনিময় সভা করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল।

স্বাআলো/এসএ