ইউপি মেম্বর কর্তৃক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ, আত্মহত্যার চেষ্টা

বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলায় করোনার ত্রাণ দেয়ার অজুহাতে বাড়িতে প্রবেশ করে ষষ্ট শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে স্থানীয় ইউপি মেম্বর ননী গোপাল বিশ্বাস (৪৫)।  ওই স্কুল ছাত্রী মনোকষ্টে গলায় ওড়না দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে থানা পুলিশকে  জাননো হয়।

এ ঘটনাটি রবিবার বেলা ১১ টার দিকে ঘটেছে উপজেলার পাঁচপাড়া গ্রামে।  ননী গোপাল বিশ্বাস  চরবানিয়ারি ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড মেম্বর ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। ঘটনার পর থেকে সে পলাতক রয়েছে। পরে মেয়েটির পিতা চিতলমারী থানায় একটি মামলা করেছেন।

ঘটনার বিষয়ে ওই ছাত্রীর পিতা  বলেন, রবিবার সকাল ১০ টার দিকে ননী মেম্বার আমার বাড়িতে এসে করোনার সাহায্য দেয়ার কথা বলে আমার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি ও মোবাইল নাম্বার নিয়ে যায়। এরপর আমি ও আমার স্ত্রী কাজের জন্য বাইরে চলে যাই। ঘন্টা খানেক পরে বাড়ি ফিরে আমার স্ত্রী দেখে ঘরের আড়ায় ওড়না দিয়ে মেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালাচ্ছে।

বাগেরহাটে প্রতিবেশীর মারপিটে আহত নারীর মৃত্যু

মেয়েকে জিজ্ঞাসা করলে সে জানায়, বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ননী গোপাল বিশ্বাস  ধর্ষণ করে চলে যায়। তাই সে মনোকষ্টে আত্মহত্যা করতে যাচ্ছিলো। এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউপি সদস্য ননী গোপাল বিশ্বাসের বক্তব্য নেয়ার চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।  ঘটনার পর থেকে সে পলাতক রয়েছে।

চিতলমারী থানার ওসি (তদন্ত) ইকরাম হোসেন জানান, ভিকটিমের বাড়িতে গিয়ে ধর্ষণের আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। ভিকটিমের পিতা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। আসামি গ্রেফতারের জন্য পুলিশ জোর চেষ্টা করছে।

স্বাআলো/আরবিএ