সুন্দরবনে আবারো আগুন

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানী টহল ফাঁড়ির বনে বুধবার সকাল থেকে নতুন স্থানে আগুন জ্বলে উঠেছে। আবারো আগুন জ্বলে উঠার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৩ টি ইউনিট। এর আগে ৩ মে সকালে লাগা আগুন ৩০ ঘণ্টা চেষ্টার পরে মঙ্গলবার সন্ধ্যা নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে ছিলো।

শরণখোলা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কর্মকর্তা আ: সাত্তার জানান, গত দুইদিন আগে শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানী টহল ফাঁড়ির বনে যেখানে আগুন লেগেছিলো সেখান থেকে আধা কিলোমিটার দক্ষিণে বুধবার সকালে নতুন করে বনের বিস্তীর্ণ জায়গায় আগুন জ্বলে উঠেছে। খবর পেয়ে বাগেরহাট, মোরেলগঞ্জ ও শরণখোলা ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা বুধবার সকাল ১০টা থেকে দুইটি পাইপের সাহায্যে পানি দিয়ে আগুন নেভানোর কাজ করছেন। আগুন একদিকে নিভলেও অপরদিক থেকে নতুন করে দুই তিন ফুট উচ্চতায় আগুন জ্বলে উঠছে। আগুন বড় গাছের শুকনো লতা বেয়ে গাছের ওপরের দিকেও উঠে যাচ্ছে। নদী থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে বনের মধ্যে পাইপের সাহায্যে পানি নিতে তাদের বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। নতুন করে আগুনে প্রায় ৩ একর জায়গা নিয়ে ছড়িয়েছে এবং গত ৩ মে লাগা আগুনে প্রায় ৬ একর জায়গা পুড়েছে বলে ঐ ফায়ার স্টেশন কর্মকর্তা জানান।

আগুনের ব্যপকতা নিয়ে বনবিভাগ, প্রত্যক্ষদর্শী গ্রামবাসী এবং ফায়ার সার্ভিসের হিসেবে বিস্তর ফারাক লক্ষ্য করা যায়।

আগুন নেভানোর কাজে নিয়োজিত দক্ষিণ রাজাপুর গ্রামের আফজাল চাপরাশী বলেন, প্রায় ৬/৭ একর জায়গায় আগুন ছড়িয়েছে। বনবিভাগ বলছে দুই একর জমিতে আগুন লাগতে পারে। বনসংলগ্ন গ্রামের রাস্তায় দাড়িয়েও প্রায় তিন কিলোমিটার দুরে বনের আগুনের ধোয়া উড়তে দেখা যায়।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান, সুন্দরবনে আগুন নিয়ন্ত্রণের জন্য বনরক্ষিদের সহায়তায় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা কাজ করছেন। গত ২ দিনের আগুনে এক দশমিক তিন একর বনভূমি পুড়েছে। আগুন লাগার সঠিক কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পুরো বিবরণ পেতে গঠিত তদন্ত কমিটি রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

স্বাআলো/আজাদুল/এসএ