অবৈধভাবে পদ্মা নদী পারাপারের চেষ্টা, যাত্রীবাহী ৬ ট্রলার আটক

মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে পদ্মা নদীতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে যাত্রী পারাপারের সময় যাত্রীবাহী ছয়টি ট্রলার আটক করেছে মাওয়া নৌপুলিশ।

আজ শনিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পদ্মা নদীর কান্দিপাড়া, মাওয়া মৎস্য আড়ত সংলগ্ন তীর ও শিমুলিয়াঘাট সংলগ্ন চর থেকে আসা এসব ট্রলার আটক করা হয়। এসব ট্রলারে ৭০ জনের অধিক নারী-পুরুষ যাত্রী নিয়ে পদ্মা নদী পারাপারের চেষ্টা করছিল বলে জানিয়েছে নৌপুলিশ।

মাওয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সিরাজুল কবির জানান, শনিবার ফেরি বন্ধের নির্দেশনার পরও প্রচুর পরিমাণে যাত্রী শিমুলিয়াঘাটে আসতে থাকে। এ সময় বিধিনিষেধ পালনে নদীতে নৌপুলিশের তদারকি চলছিল। এরই মধ্যে দুপুর ও বিকেলে কিছু সংখ্যক যাত্রী ফেরিতে উঠতে না পেরে ট্রলারযোগে পদ্মা পাড়ি দেয়ার চেষ্টা করে। অভিযান চালিয়ে মাওয়া মৎস্য আড়ত ও কান্দিপাড়া থেকে চারটি এবং শিমুলিয়াঘাট সংলগ্ন চর থেকে দুটি ট্রলার আটক করা হয়।

ভারতের সঙ্গে স্থলসীমান্ত বন্ধের মেয়াদ আরো বাড়লো

এ সময় চালকরা পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করা যায়নি। ট্রলারে ওঠা যাত্রীদের নিরাপদে ফেরত পাঠানো হয়েছে। যাত্রীদের সবার বাড়িই দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, করোনার বিস্তার রোধে সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধের নির্দেশনা অনুযায়ী পদ্মার শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটসহ নদীতে লঞ্চ, স্পিডবোট ও ট্রলার চলাচলে নিষেধাজ্ঞা চলছে।

স্বাআলো/আরবিএ