আর্সেনিকমুক্ত নলকূপ পেয়ে রফিকুলের মুখে হাসি

হাসানুজ্জামান হাসান,লালমনিরহাট : রফিকুল ইসলাম (৫৯)। পেশায় দিনমজুর।অন্যের বাড়িতে কাজ করে সংসার চলে তার। অনেক সময় কাজ না থাকলে দিন কাটে অনাহারে-অর্ধাহারে। তিনি পরিবারের মুখে দু-মুঠো খাবার তুলে দেয়ার জন্য দিনমজুরের কাজ করে থাকেন। অর্থের অভাবে একটি অর্সেনিক মুক্ত নলকূপ স্থাপন করতে পারেননি। তার এই দূর্দশা দেখে এগিতে আসে কাকিনার স্বপ্নবাজ দুই তরুণ উদ্যেক্তা। দ্রুত স্থাপন করে দেয় একটি অর্সেনিক মুক্ত নলকূপ। নলকূপ পেয়ে রফিকুল খুবেই আনন্দিত।

রফিকুল লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা।নলকূপ পেয়ে রফিকুল বলেন, দুই বছর ধরে আমার পানি খাওয়ার সমস্যা ছিলো। আগের নলকূপটি চারদিকে ফুটো হয়ে থাকায় পানি থাকতো না। দীর্ঘদিন ধরে আশায় ছিলাম কিন্তু মেম্বার- চেয়ারম্যান কোন খোঁজ নিলো না। এই দুই তরুণ উদ্যেক্তা মমতাজ আলী শান্ত ও ইয়াছিন আলী আমার পানি খাওয়ার কষ্ট দেখে তাৎক্ষনিক ভাবে একটি অর্সেনিক মুক্ত নলকূপ স্থাপন করে দিয়েছে। আমি কখনো এটা ভাবিনাই আমার ভাগ্যে নলকূপ জুটবে। কিন্তু তারা আমার কষ্ট দেখে থেমে থাকেনি।

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনার উন্নয়নে  মমতাজ আলী শান্ত ও  ইয়াছিন আলী রেখেছে বিশেষ অবদান। যা সমাজের প্রত্যেকটি মানুষের কাছে প্রসংশনীয়। চলতি বছরে রকিকুল ইসলামেরসহ  ৪৪টি নলকূপ স্থাপন করেছেন এই দুই স্বপ্নবাজ দুই তরুণ উদ্যেক্তা।

ইতোমধ্যে এই দুই তরুণ উদ্যেক্তা নিজ অর্থায়নে মাটির রাস্তা মেরামত, মসজিদ-মাদ্রাসা,মন্দিরে সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছেন। শুধু তাই নয়, সম্প্রতি অসহায় ভিক্ষুক গৌরদাসকে গৃহ নির্মাণ করে দিয়ে মানবতার এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। এর আগে করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে জীবানু নাশক স্প্রে ও খাবার বিতরণ করেছেন তারা।

সমাজ সেবক ও তরুণ উদ্যেক্তা মমতাজ আলী শান্ত জানান, অসহায় মানুষের ভালোবাসা আমার পথ চলার অনূপ্রেরণা। অসহায় ও হতদরিদ্র মানুষের পাশে আমি সর্বদা নিয়োজিত রয়েছি। তাদের হাসি আমার আত্নতৃপ্তি। এলাকার সার্বিক উন্নয়নে আমরা দুই বন্ধু কাজ করে যাচ্ছি। একটি আধুনিক ইউনিয়ন গড়তে যা করনীয় তা করছি। আমার গ্রামকে নিয়ে স্বপ্ন দেখি। এলাকার আধুনিকায়নে সমাজের সকল শ্রেণীর মানুষের সমর্থন ও মমামত কামনা করছি।

ইয়াছিন আলী বলেন, রফিকুলের মত ৪৪টি পরিবারের মাঝে নলকূপ স্থাপন করেছি। স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী ৫০বছর পূর্তি উপলক্ষে আমরা দুই বন্ধু ৫০টি আর্সেনিক মুক্ত নলকূপ স্থাপনের এই মহতি উদ্যেগ নিয়েছি। অসহায় মানুষের পাশে আমরা সর্বদা নিয়োজিত রয়েছি। আমাদের জন্য আপনারা সকলে দোয়া করবেন।

স্থানীয়রা বলেন, মমতাজ আলী শান্ত ও ইয়াছিন আলী কোন জনপ্রতিনিধি না হয়েও এলাকার উন্নয়নে যে কাজ করছে তা অতীতে কোন মেম্বার- চেয়ারম্যান করে দেখাতে পারেনি। মানবিক দুই তরুণ উদ্যেক্তাকে আমরা সর্বদা শুখে-দুঃখে সব সময় পাশে পাই।

তারা আমাদের এলাকার গৌরব। অসহায়, গরীব, হতদরিদ্রের ত্রাণকর্তা। সমাজ বিনির্মাণের আলোকবর্তিকা। মার্জিত ও রুচিসম্মত আধুনিক সমাজ গড়ার বার্তাবাহক। একের পর এক করে যাচ্ছেন সমাজের উন্নয়নের জন্য। আমরা আশাবাদী তারা আগামীতেও এই ধারা অব্যাহত রাখুক। এ জন্য তাদের প্রতি আমাদের অকৃতিম দোয়া ও ভালোবাসা রইল।

স্বাআলো/কে