পেছালো চার ইউপির নির্বাচন, ভোট ১৪ জুলাই

দেশের চারটি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন পিছিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এসব ইউপিতে ১৪ জুলাই ভোট নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। ফলে আগামী ২১ জুন ৩৬৭টি ইউপিতে ভোট হবে।

যে চার ইউপির নির্বাচন পেছানো হয়েছে সেগুলো হলো: খুলনার পাইকগাছা উপজেলার হরিঢালি, বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার খাউলিয়া, কচুয়া উপজেলার কচুয়া ও সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার ভাতগাঁও।

ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখার উপ-সচিব আতিয়ার রহমান জানান, বৈধ প্রার্থী মৃত্যুবরণ করায় নির্বাচন পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে চেয়ারম্যান পদে সকল কার্যক্রম আবার নতুন করে শুরু হবে। তবে সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদের যেসব প্রার্থী বৈধ হয়েছিলেন তারাই থাকবেন।

ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার তিনি রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে চিঠিও দিয়েছেন।

এতে বলা হয়েছে, ১ম ধাপে ঘােষিত তফসিলের মধ্যে ভােটগ্রহণের পূর্বে চেয়ারম্যান পদে মনােনীত বৈধ প্রার্থীর মৃত্যু হওয়ায় স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর ধারা ২০ এবং স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) নির্বাচন বিধিমালা, ২০১০ এর বিধি ১০ অনুসারে নিম্নেবর্ণিত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য ও সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে আগামী ১৪ জুলাই ২০২১ তারিখে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত প্রদান করেছেন।

চেয়ারম্যান পদে ইতােপূর্বে যারা মনােনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন তাদের নতুন করে মনােনয়নপত্র দাখিলের প্রয়ােজন হবে না এবং পূর্বে মনােনয়নপত্র দাখিলকারীগণকে নতুনভাবে মনােনয়নপত্র দাখিল/প্রত্যাহারের সুযােগ দেয়া যাবে।

সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য ও সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে পূর্বের মনােনয়ন বহাল থাকবে। ওই দুটো পদে বিদ্যমান প্রার্থীদের মধ্যেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে অর্থাৎ শুধুমাত্র চেয়ারম্যান পদে নতুনভাবে মনােনয়ন দাখিল করা যাবে।

স্বাআলো/এস