মোবাইল ব্যবহারে বাধা দেয়ায় যশোরে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

মণিরামপুর: যশোরের মণিরামপুরে বৃন্তিলা পাল (১৭) নামে এক কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার রাত ১১টার দিকে স্বজনরা নিজ ঘরের আড়ার সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় বৃন্তিলা পালের লাশটি উদ্ধার করে। বৃন্তিলা উপজেলার চিনাটোলা গ্রামের দেবকুমার পালের মেয়ে।

সে স্থানীয় একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী ছিলো। মোবাইল ফোন ব্যবহারে বাধা দেয়ায় মায়ের ওপর অভিমান করে কলেজছাত্রী আত্মাহত্যা করেছে বলে দাবি স্বজনদের। এই ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে কলেজছাত্রীর কাকা সুকুমার পাল বাদি হয়ে থানায় অপমৃত্যু মামলা করেছেন।

মাল্টিপ্লাগের ছিদ্রে আঙুল, যশোরে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শিশুর মৃত্যু

শ্যামকুড় ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনি বলেন, বৃন্তিলা লেখাপড়া ছেড়ে মোবাইল ফোন ব্যবহারে অতিরিক্ত আসক্ত হয়ে পড়ে। বুধবার রাতে এই নিয়ে তার মা অলোকা পাল বকাঝকা করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নিজ ঘরের দরজা বন্ধ করে আড়ার সাথে ওড়না জড়িয়ে গলায় ফাঁস দেয় সে। রাতে খাবারের জন্য পরিবারের লোকজন বৃন্তিলাকে ডাকাডাকি করে। কোনো সাড়া না পাওয়ায় দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে স্বজনরা বৃন্তিলাকে ঝুলতে দেখে। পরে তাদের ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে কলেজছাত্রীর লাশ উদ্ধার করে।

মণিরামপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান বলেন, এই ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এই বিষয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্বাআলো/এসএ