মানববন্ধনের ব্যানার ছিনতাই, সাংবাদিকদের ওপর হামলা

জেলা প্রতিনিধি, মাগুরা: জেলার শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়নুর রশিদ মুহিতের অত্যাচার নির্যাতনের বিরুদ্ধে রবিবার (২২ আগস্ট) প্রেসক্লাবের সামনে দাঁড়ানো মানববন্ধন থেকে ব্যানার কেড়ে নিয়ে গেছে জেলা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এ সময় ছবি তুলতে গেলে তারা দৈনিক অধিকার পত্রিকার সাংবাদিক হেলাল হোসেনসহ উপস্থিত কয়েক সাংবাদিকের ওপর হামলা চালিয়েছে।

দুপুর ১টার দিকে মানববন্ধনে অংশ নেয়া নাকোল ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামবাসীরা অভিযোগ করেন, শুক্রবার সকালে শ্রীপুর উপজেলার ওয়াপদা বাজার এলাকায় মান্দারতলা গ্রামের ইয়াসিন শেখ নামে এক ব্যক্তি শাবলগাছা গ্রামের আলিয়ার রহমানের কাছ থেকে এক খণ্ড জমি ক্রয় করে বসত বাড়ি নির্মাণ করছিলেন। এ সময় শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাকোল ইউপি চেয়ারম্যান সেখানে উপস্থিত হয়ে জমি ছেড়ে দেয়ার কথা বলে ইয়াসিনের ওপর হামলা চালায়। পরে জমির বিক্রেতা দরিদ্র ভ্যান চালক আলিয়ার রহমানকে ওই জমি ইয়াসিনের কাছে বিক্রির দায়ে বেদম মারপিট করে হাত ভেঙ্গে দেয়।

নির্যাতনের শিকার ইয়াসিন শেখের মা নূর জাহান বলেন, আমার ছেলেকে মারধর করেছে। এ বিষয়ে ছেলে শ্রীপুর থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে থানা মামলাটি নেয়ার ক্ষেত্রে গড়িমসি করে। যে কারণে বাধ্য হয়ে ওই ঘটনার বিচার ও নিরাপত্তার দাবিতে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করতে এসেছিলাম। কিন্তু জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল হোসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক রমেশ কুমার বৈদ্যসহ বেশ কয়েকজন হামলা চালিয়ে ব্যানার কেড়ে নিয়ে যায়।

এ ঘটনার পর এলাকাবাসি বাধ্য হয়ে ব্যানার ছাড়াই প্রেসক্লাব ভবনের প্রবেশ গেটে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন করে। পরে মাগুরা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে স্মারকলিপি দিয়েছে তারা।

এ বিষয়ে মাগুরা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মীর মেহেদি হাসান রুবেল বলেন, বিছিন্নভাবে কেউ ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে। কিন্তু এর সঙ্গে ছাত্রলীগের রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই।

স্বাআলো/এসএ