আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) কাবুলে হামলার পরিকল্পনাকারীদের ওপর ড্রোন হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। কাবুল বিমানবন্দরে হামলার ঘটনায় দেশটির সেনাবাহিনীর ১৩ সদস্যসহ ১৭৫ জন নিহত হওয়ার ঘটনার পর এমন হামলা চালালো যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় কমান্ডের ক্যাপ্টেন বিল আরবান এক বিবৃতিতে হামলার ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, আফগানিস্তানের নানগার প্রদেশে এ ড্রোন হামলা চালানো হয় এবং এতে কাবুলে হামিদ কারজাই বিমানবন্দরে হামলার পরিকল্পনাকারীদের একজন নিহত হয়েছে।

এর আগে কাবুলে হামলার পরপরই আইএসের খোরাসান শাখা আইএস-কে হামলার দায় স্বীকার করে। যুক্তরাষ্ট্র জানায়, আবারো হামলার ইঙ্গিত পাওয়ার পর আইএস কে টার্গেট করে এ হামলা চালায় তারা। তবে কোন বেসামরিক লোক এতে নিহত হয়নি বলে দাবি তাদের।

আফগানিস্তানে কখনোই জাতি গঠনের কথা ছিলো না: বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট শুক্রবার কাবুলের বিমানবন্দরে হামলাকারীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিলেন, বৃহস্পতিবারের হামলার ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করা হবে।

আফগানিস্তানের কাবুলে হামলা চালানো আইএস-কে সংগঠনটির পূর্ণ নাম ইসলামিক স্টেট অব খোরাসান। জঙ্গী গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) এর আঞ্চলিক সহযোগী শাখা হিসেবে কাজ করছে তারা। বর্তমান আফগানিস্তান ও পাকিস্তান নিয়ে প্রাচীন আমলে যে অঞ্চল সেটিই খোরাসান নামে পরিচিত ছিল। বর্তমানে আইএস-কে আফগানিস্তান ও পাকিস্তানে সক্রিয় রয়েছে বলে জানা গেছে।

স্বাআলো/আরবিএ

.

Author