নড়াইলে মামার বাড়ি বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকারে শিশুর মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি, নড়াইল: নড়াইলে মামার বাড়ি বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার হয়ে সুবর্ণা (৭) নামে এক শিশুর মৃত্যু ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শিশুটির মামা ও মামিকে আটক করেছে।

আজ শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে নড়াইল পৌরসভার ভওয়াখালী এলাকার ভাড়া বাসা থেকে তাদের আটক করা হয়। নিহতের পিতার নাম সিরাজ বাড়ি বরিশালে বলে জানা গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বরিশালের সিরাজুল ইসলাম ও ঝর্না বেগম ঢাকার মিরপুর এলাকায় থাকেন। মেয়ে সুবর্ণ সম্প্রতি ঢাকা থেকে নড়াইল পৌরসভার ভওয়াখালী এলাকার নয়নের বাড়ির ভাড়ায়টিয়া মামা হাফিজুর রহমানের বাড়িতে বেড়াতে আসে । শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে শিশু সুবর্ণাকে জরুরী বিভাগে নিয়ে আসে তার আত্মীয়রা। তারা জানায় সুবর্ণা জ্বরের কারণে অসুস্থ্য হয়ে পড়েছে।

জরুরী বিভাগের চিকিৎসকরা শিশুটির শরীরের আলাতম দেখে তাদের সন্দেহ হয় এবং হাসাপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হওয়ায়, হাসপাতাল থেকে তাৎক্ষনিক বিষয়টি সদর থানায় জানালে থানার ওসি শওকত কবির, সদর থানার এসআই আমির হোসেন হাসপাতালে আসেন। বিষয়টি তারা খোঁজ খবর নেন। নিহতের মামা হাফিজুর রহমান ও মামি তানিয়া খনমকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায়।

জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ হাফিজুর রহমান মুক্ত বলেন, হাসপাতালে আনার আগের শিশুর টির মৃত্যু হয়েছে। প্রাথমিভাবে ধারণা করা হচ্ছে শিশুটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে। নিহতের শরীরের ধর্ষণে আলামত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

থানার ওসি শওকত কবির বলেন, মৃতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। ময়না তদন্তে প্রতিবেদন পাওয়ার পর সঠিক কারন জানা যাবে।

তিনি আরো বলেন, নিহতের মামা হাফিজুর রহমান ও মামি তানিয়া খনমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।

স্বাআলো/আরবিএ

.

Author