স্কুল ড্রেস তৈরিতে ব্যস্ততা ফিরেছে দর্জিপাড়ায়

জেলা প্রতিনিধি, পটুয়াখালী: করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় দেড় বছর পরে আগামী (১২ সেপ্টেম্বর) রবিবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে। দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের নির্ধারিত পোশাক শিক্ষার্থীদের গায়ের তুলনায় ছোট হয়ে গেছে। সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ঘোষণা দেয়ার পরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নির্ধারিত পোশাক বানানোর হিড়িক পড়েছে। ফলে দীর্ঘদিন পরে ফের ব্যস্ততা ফিরেছে দর্জিপাড়ায়।

তিন ফুট দূরত্ব রেখে শ্রেণিকক্ষে বসবে শিক্ষার্থীরা, দিনে হবে দুই বিষয়ের ক্লাস

৩য় শ্রেণি থেকে ১০ম শ্রেণির ছেলে শিক্ষার্থীদের স্কুল ড্রেস প্রতিটি (প্যান্ট ও শার্ট) এর বানানো মজুরি রাখা হচ্ছে ৭০০ টাকা। ৩য় শ্রেণি থেকে ১০ম শ্রেণি মেয়ে শিক্ষার্থীদের স্কুল ড্রেস প্রতিটি  (থ্রী- পিস) এর বানানো মজুরি রাখা হচ্ছে ৪০০ টাকা।

চমক টেইলার্সের মালিক সমির চন্দ্র বলেন, করোনার কারণে অনেক মানুষের হাত খালি। অনেকে কষ্ট করে হলেও বাচ্চাদের স্কুল ড্রেস তৈরি করতে দিচ্ছে। আজ দুইদিন হলো সবে মাত্র স্কুল ড্রেসের অর্ডার দেয়া শুরু করছে। সামনে আরো বাড়বে।

স্বাআলো/এসএ