কলেজের হোস্টেলে মিললো শিক্ষার্থীর মরদেহ, কতৃপক্ষের দাবি আত্মহত্যা

ঢাকা অফিস: রাজধানীর উত্তরায় শাহীন স্কুল এন্ড কলেজের হোস্টেল থেকে এসএসসি পরীক্ষার্থী এক ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সুস্থ ছেলে হোস্টেলে রেখে গিয়ে রাতেই এক মাত্র সন্তানের মরদেহ পেয়ে শোকে পাথর মা। স্কুল কতৃপক্ষ আত্মহত্যা বললেও পরিবারে সদস্যরা মানতে নারাজ।

আবির হোসেন এবছর এসএসসি পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিলো। দেড় বছর পর স্কুল খোলার ঠিক আগের দিন শনিবারদুপুরে উত্তরা শাহীন স্কুল ও কলেজের হোস্টলে রেখে যান তার বাবা। সন্ধ্যায় বাবার কাছে স্কুল থেকে ফোন আসে আবিরের অবস্থা ভালো না। রাতেই স্কুলে পৌঁছে সেই ছেলের মরদেহ তুলে দেয়া হলো বাবা মায়ের কাছে।

স্কুল শাখার পরিচালক জানান, রাতে শোবার ঘরের জানালার সাথে গামছা প্যাচানো অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। এরপর নেয়া হয় উত্তরার একটি হাসপাতালে। যদিও এবিষয়ে পুলিশের কেউ কথা বলতে রাজি হয়নি।

আবিরের গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইলে। চাকরিজীবী বাবা মার সাথে ঢাকার নবাবগঞ্জে থাকতেন। অপমৃত্যুর মামলা শেষে মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

স্বাআলো/এসএ