বিমানবন্দরে প্রবাসীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হোক

সম্পাদকীয়: হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে ছিনতাইকারী চক্র  চা, কফি, জুস, ডাবের পানি ব্যবহার করে প্রবাসীদের অচেতন করে তাদের সর্বস্ব ছিনিয়ে নিচ্ছে। কখনো যাত্রীরা জিনিসপত্র দিতে বাধা দিলে অস্ত্রের ভয় দেখায়। গত এক বছরে তারা অর্ধশতাধিক ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানা একাধিক মামলার তথ্য আছে। গণমাধ্যমে এ উদ্বেগজনক খবর প্রকাশ হয়েছে। পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে প্রবাসীদের সিংহভাগ কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশে যান। দীর্ঘদিন সেখানে থেকে কেউ ছুটিতে আবার কেউ একেবারে বাড়িতে ফেরেন। আসার সময় সাথে আনেন স্বজনদের জন্য বিভিন্ন জিনিসপত্র ও টাকা-পয়সাও আনেন অনেকে। কিন্তু এভাবে যদি বিমান বন্দরে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে তাহলে তাদের হা-হুতাশ করার আর সীমা থাকে না।

রেন্ট-এ-কার ব্যবহার করে এই অপকর্মগুলো করা হচ্ছে। বিদেশফেরত প্রবাসীদের বিমানবন্দর থেকে গন্তব্যে পৌঁছে দিতে গাড়িতে তুলে জিম্মি করে বা অচেতন করে অর্থ ও মালামাল ছিনতাই ও লুণ্ঠনের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে ইতোমধ্যে তিন জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ ।

লিটন সরকার নামে এক প্রবাসী ৭ সেপ্টেম্বর মিশর থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নেমে গোলচত্ত্বরে ফুটওভার ব্রিজের নিচে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন। ৫-৬ জন লোক চাকু দেখিয়ে তার হ্যান্ডব্যাগ ও লাগেজ নিয়ে যায়। তার পাসপোর্ট, বিমানের টিকিট, আট আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন, দুটি মোবাইল সেট, একটি স্মার্ট কার্ড ও প্রয়োজনীয় কাপড়চোপড়সহ নগদ ৪০ হাজার টাকা তারা নিয়ে যায়। ৫ অক্টোবর ব্রিটেন থেকে ঢাকায় নামেন ওমর শরিফ। নাটোরের বড়াইগ্রাম যাওয়ার সময় বিমানবন্দর এলাকা থেকে অপহৃত হন তিনি। এরপর তাকে ঢাকার বাইরে নামিয়ে দেয়া হলেও তার পাসপার্টসহ প্রয়োজনীয় সব মালামাল লুট করা হয়। এরা বিদেশ থেকে আসা যে সব যাত্রী একা বাড়ি যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করে, তাদেরকে টার্গেট করে খাতির জমায় এবং পরিবেশ পরিস্থিতি বিবেচনা করে অস্ত্রের ভয় মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

ফসলের ক্ষতিতে কৃষকের ঘরে কান্নার রোল

আবার কখনো কৌশল হিসেবে বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের টার্গেট করে সখ্যতা গড়ে তোলে, তারপর তাদের চেতনানাশক দ্রব্য মেশানো খাবার’ খাইয়ে মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায়।

সুখের সন্ধানে শেষ সম্বল ভিটে-মাটি পর্যন্ত বিক্রি করে অনেকে বিদেশে পাড়ি দিচ্ছে। বাড়ি ফেরার পথে বিমান বন্দরে এমনটা হতে দেয়া যায় না। প্রবাসীরা যাতে নিরাপদে বাড়ি ফিরতে পারেন সে ব্যাপারে ছিনতাইকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।

স্বাআলো/আরবিএ

.

Author