ছয় মাসের সাজা থেকে বাঁচতে ৫ বছর পলাতক

জেলা প্রতিনিধি, চুয়াডাঙ্গা: চেক প্রতারণার দুটি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি জাহাঙ্গীর আলমকে (৫১) আটক করেছে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ।

সোমবার বিকেল পাঁচটার দিকে তাকে আদালতে সপার্দ করা হয় । পরে তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালতের বিচারক। এর আগে সকালে ঢাকার বনানী এলাকা থেকে গ্রেফতার করে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ । গ্রেফতার কৃত জাহাঙ্গীর আলম চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার কোর্টপাড়ার বাসিন্দা।

পুলিশ জানায়, জাহাঙ্গীর খুলনার কনস্ট্রাকশন ম্যাটেরিয়াল এর স্বত্তাধিকারী কামালের সাথে ব্যবসা করতেন। ব্যবসার এক পর্যায়ে টাকা আটকে ফেলেন তিনি। এরই প্রেক্ষিত ২০১৩ সালে তার বিরুদ্ধে জালিয়াতির মামলা করা হয় । ২০১৬ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি ওই মামলায় তাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ লাখ ৭ হাজার ৪০০ টাকা অর্থদন্ডাদেশ দেন আদালত ।

দুই বন্ধুর দাফনও হলো পাশাপাশি

এছাড়াও ২০১৫ সালে তার বিরুদ্ধে আরো একটি মামলা হয় । চলতি বছরের ২ মার্চ ওই মামলায় তাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা অর্থদন্ডাদেশ দেন আদালত । তার পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে সোমবার সকালে ঢাকার বনানী এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান,বিকেলে গ্রেফতারকৃত জাহাঙ্গীরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ওই দুটি মামলা ছাড়াও তার বিরুদ্ধে চুয়াডাঙ্গা, খুলনাসহ বিভিন্ন জেলায় আরো ৭-৮টি মামলা রয়েছে। মামলাগুলো বিচারাধীন রয়েছে।

স্বাআলো/আরবিএ