বিদ্রোহীদের সঙ্গে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর তুমুল সংঘর্ষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এবং জাতিগত সংখ্যালঘু বিদ্রোহীদের মধ্যে তীব্র লড়াইয়ের মুখে, সাড়ে ৫০০ শিশুসহ আড়াই হাজারের বেশি মানুষ পালিয়ে থাইল্যান্ড সীমান্তে আশ্রয় নিয়েছেন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার থাইল্যান্ডের ‘তাক’ প্রদেশের উপ গভর্নরের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বিষয়টি নিশ্চিত করে। গত ফেব্রুয়ারিতে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চির গণতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাত করে সামরিক বাহিনী ক্ষমতা দখলের পর থেকেই দেশটিতে বিক্ষোভ আর আন্দোলনে অশান্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

এর ধারাবাহিকতায় কয়েকদিন ধরে দেশটির সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়ন এবং সেনাবাহিনীর মধ্যে তুমুল লড়াই চলছে। এ অবস্থায় মিয়ানমার থেকে কয়েক হাজার মানুষ পালিয়ে এসেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান থাইল্যান্ডের তাক প্রদেশের উপ গভর্নর সোমচাই।

মিয়ানমারে ফের ব্যাপক নৃশংসতার আশঙ্কা, সেনা মোতায়েন

সোমচাই আরো বলেন, দুই দেশের সীমান্তের থাইল্যান্ড অংশে বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা কয়েক হাজার। আর এদের মধ্যে পাঁচ শতাধিক শিশু বলে জানিয়েছেন থাইল্যান্ড-ভিত্তিক মিয়ানমারের শরণার্থী অধিকার সংগঠন এইড অ্যালায়েন্স কমিটির কর্মকর্তা ইয়ে মিন।

এইড অ্যালায়েন্সের পক্ষ থেকে বাস্তুচ্যুত মানুষদের খাবার ও বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। তাক প্রদেশ কর্তৃপক্ষ বলছে, বৃহস্পতিবার থাই সীমান্ত থেকে ৫০০ মিটার দূরে কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়নের সঙ্গে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সংঘর্ষ হয়েছে।

যদিও এ ঘটনায় হতাহতের বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু জানানো হয়নি। সংঘর্ষের পর ওই এলাকায় টহল জোরদার করেছে থাই বাহিনী।

স্বাআলো/আরবিএ

.

Author