শিক্ষক নিয়োগ: লকডাউন হলে ভেরিফিকেশন কার্যক্রম পেছাবে

ঢাকা অফিস: দেশে করোনাভাইরাইসের সংক্রমণ বাড়লে আবারো লকডাউন দেয়া হবে। আর লকডাউন হলে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সুপারিশপ্রাপ্ত ৩৮ হাজারের বেশি শিক্ষকের পুলিশ ভেরিফিকেশন কার্যক্রম পেছাবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের নভেম্বর মাস থেকে সুপারিশপ্রাপ্তদের ভেরিফিকেশন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। দেশের প্রায় সব জেলায় ভেরিফিকেশন কার্যক্রম চলমান রয়েছে । দ্রুত সময়ের মধ্যে ভেরিফিকেশন শেষ করার জন্য সংশ্লিষ্ট গোয়েন্দা শাখাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে গেলে ভেরিফিকেশন কার্যক্রম পিছিয়ে পড়বে। কেনোনা লকডাউন দেয়া হলে সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকবেন। এই অবস্থায় ভেরিফিকেশন কার্যক্রম স্থগিত হয়ে যাবে।

শিক্ষক নিয়োগ: ৪ বিভাগে পৌঁছেছে পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সুরক্ষা সেবা বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, সরকার যদি আবার লকডাউন ঘোষণা করে তাহলে তো ভেরিফিকেশন কার্যক্রম চলমান রাখা সম্ভব হবে না। কেনোনা আগে জীবন, পড়ে জীবিকা।

এদিকে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) কর্মকর্তারা বলছেন, লকডাউন হলে পুলিশ ভেরিফিকেশন কার্যক্রমে ধীরগতি আসবে। তবে সে ধরনের পরিস্থিতি যেনো তৈরি না হয় সেটিই প্রত্যাশা থাকবে।

চলতি সপ্তাহে সব বিভাগে পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম পাঠানোর নির্দেশ

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে এনটিআরসি সদস্য (পরীক্ষা মূল্যায়ন ও প্রত্যয়ন) এ বি এম শওকত ইকবাল শাহীন বলেন, শিক্ষকদের পুলিশ ভেরিফিকেশন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে ভেরিফিকেশন শেষ করার জন্য আমরা সময় সুরক্ষা সেবা বিভাগের সাথে যোগাযোগ রাখছি। তারাও এ বিষয়ে আন্তরিক।

লকডাউন হলে ভেরিফিকেশন চলমান থাকবে নাকি বন্ধ হয়ে যাবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, এটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেভা বিভাগ বলতে পারবে। বিষয়টি তাদের হাতে।

স্বাআলো/এস