পাচারের জন্য চৌগাছায় আটকে রাখা ৪ যুবতী উদ্ধার, পাচার চক্রের তিন সদস্য গ্রেফতার

আজিজুর রহমান, চৌগাছা: যশোরের চৌগাছায় পাচারের জন্য একটি বাড়িতে আটকে রাখা চার যুবতীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান (র‌্যাব)-৬ এর সিপিসি-৩ যশোর শহরের টহল দলের সদস্যরা। উদ্ধারদের দুই জন ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ, একজন ধামরাই ও একজন শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার বাসিন্দা।

শনিবার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে তাদের উদ্ধার করে র‌্যাব। এসময় পাচারকারী চক্রের তিন সদস্য আকবর আলী (৫০), তার স্ত্রী কোহিনুর বেগম (৪৫) ও ছেলে বাবুল হোসেনকে (২৬) আটক করা হয়। তারা শহরের পাঁচনমনা গ্রামের বাসিন্দা।

চৌগাছায় অভিনব কায়দায় ছাগল চুরির সময় নারীসহ তিন চোর হাতেনাতে ধরা

চৌগাছা থানায় লিখিত অভিযোগে পাচারের জন্য আবদ্ধ করে রাখা এক যুবতী বলেন, আমরা সকল ভিকটিম অত্যন্ত গরীব ও অসহায়। বিভিন্ন কাজ করে অনেক কষ্টে জীবন যাপন করি। মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন মাধ্যমে দুই ব্যক্তির সাথে আমাদের পরিচয় ও যোগাযোগ হয়। তারা আমাদের ভারতে ভালো কাজ দেবে বলে প্রলুব্ধ করে। আমরা তাদের কথায় রাজি হলে ৭ ডিসেম্বর রাতে একজন আসামি আশুলিয়া-নবিনগর থেকে আমাদের বাসে উঠিয়ে দেয়। ৮ ডিসেম্বর ভোর ৫ টায় যশোর পালবাড়ি পৌঁছে একটি হোটেলে অপেক্ষা করি। সেখান থেকে বাবুল হোসেনের সাথে যোগাযোগ হলে তাদের পরামর্শে ইজিবাইকে করে চৌগাছা পৌঁছালে বাবুল আমাদের তার বাড়িতে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে চুপচাপ থাকতে বলে। আমরা অন্যদের সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তারা ভয়ভীতি দেখিয়ে আন্দুলিয়া সীমান্ত দিয়ে আমাদের ভারতে পাঠাবে বললে আমরা ভয় পেয়ে আমাদের পরিবার ও স্বজনদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করি। পরে র‌্যাবের টহল দল সংবাদ পেয়ে শনিবার ২টা ৪০ মিনিটে বাবুলের বাড়ি থেকে আমাদের উদ্ধার করে এবং তিন আসামিকে আটক করে।

চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন, পাচারের জন্য এক বাড়িতে আটকে রাখা চার যুবতীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এঘটনায় গ্রেফতার তিনজনসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা হয়েছে। আসামি ও উদ্ধারদের রবিবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে আসামিদের কারাগারে পাঠানো হবে এবং উদ্ধারদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

স্বাআলো/এসএ

.